রোববার   ২১ জুলাই ২০২৪   শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

অবরোধে বন্ধ পণ্য পরিবহন

যুগের চিন্তা রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর ২০২৩  

 

# গাড়ি বন্ধ রাখার কারণে আমাদের সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে : চালক

 

 

দেশে চলমান বিএনপি-জামায়াতের হরতাল ও অবরোধসহ বিভিন্ন কর্মসূচির কারণে দেশের বিভিন্ন জেলায় খাদ্য সরবরাহকারী ট্রাক-কর্ভাডভ্যান চালকরা রয়েছে আতঙ্কে ও দুর্ভোগে। এ বিষয়ে কথা বলে জানা যায় দেশে রাজনৈতিক বিভিন্ন দলের কর্মসূচির কারনে বন্ধ হয়ে আছে অনেক পরিবহনও মালবাহী গাড়ি। এ বিষয়ে নিতাইগঞ্জ ব্যবসায়িক এলাকা সকাল-সন্ধ্যা সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, ট্রাক-কর্ভাডভ্যান চালকরা রয়েছে আতঙ্কে তেমনই সাধারণ মানুষরাও রয়েছে দুর্ভোগের।

 

অবরোধ সফল করতে সরকার বিরোধীদল গুলো বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করে গাড়ি ভাংচুর ও আগুন দিচ্ছে। এ ভয়ে অনেকেই গাড়ি নিয়ে বের হচ্ছেন না সড়কে। নারায়ণগঞ্জ থেকে খাদ্য পণ্য নিয়ে ময়মনসিংহ, মানিকগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করেন কবির নামে এক ট্রাক চালক তিনি বলেন, গত ৮ই নভেম্বর ভোরের দিকে হঠাৎ মিছিলের সামনে পরে যায় তার গাড়িটি।

 

তারই সামনের গাড়িটি ভাঙ্গচুর করে ড্রাইভারকে আহতে করে তারা চলে যায় এই ঘটনাটা নিজের চোখের সামনে ঘটতে দেখে আমার অবস্থা নাজেহাল হয়ে যায়। এমন পরিস্থির মধ্যে দিয়েও মানুষের কথা চিন্তা করে গাড়ি চালাই। কেননা নিত্যপণ্যের দাম বাজারে এমনিতেও লাগামহীন তার উপর আমরা যদি খাদ্য গুলো সরবরাহ করা বন্ধ করে দেই তাহলে দেশের অবস্থা আরো খারপের দিকে যাবে। তাই দুই দল সংঘাত ভুলে এক হয়ে সাধারণ মানুষের সেবা করুক।

 

সরজমিনে আরো দেখা যায়, কিছু সংখ্যক গাড়ির চালকেরা বসে অবসর সময় কাটাচ্ছে। আবার অনেকে দেশে ভয়াবহ পরিস্থিকে পরোয়া না করে মালামাল নিয়ে এক জেলা থেকে পারি দিচ্ছেন অন্য জেলাতে। এ বিষয়ে জালাল নামে কভার্ডভ্যান চালক বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি অনেক ভয়াবহ। একটা ট্রিপ নিয়ে যখন গাড়ি ছাড়ি তখন মনে এক আতঙ্ক থাকে। দুই দিন পর পর তারা অবরোধ ঘোষনা করে আর সাধারণ মানুষকে ভোগান্তি পোহাতে হয়।

 

মিছিলের সামনে গাড়ি পরলেই তারা গাড়ি তো ভাঙ্গচুর করেই আবার ড্রাইভারদেরও মারধর করে। আমাদেরর  মতো সাধারণ মানুষরা পেটের দায়ে এমন অবস্থাতেও গাড়ি চালায়। কেননা গাড়ি বন্ধ রাখলে আমাদেরও সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হবে আর জিনিসের দামও বেড়ে যাবে। আবার এই হরতাল-অবরোধ কি মানুষের ভালোর জন্য করছে তা-তো না। বরং মানুষের রুটি-রোজগারের আঘাত আসে।

 

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা ট্রাক, কভার্ডভ্যান ও ট্যাংকলরি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সফিউদ্দিন প্রধান যুগের চিন্তাকে জানান, প্রশাসন অনেক একটিভ আমাদের অনেক সহযোগিতা করছে। দেশের পরিস্থিতি তো ভয়াবহ তা আমরা জানি তারপরেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তারা চলাচল করছে।

 

তিনি আরো বলেন, কিছু দিন আগে মালিক সমিতির লোকরা, শ্রমিকসহ সবাইকে নিয়ে একটা মিটিং করেছিলাম সেখানে নারায়ণগঞ্জে এসপি আমাদের কে বলেছিলো আপনারা সড়কে গাড়ি চালান কোনো সমস্যা হলে ক্ষতিপূরণ আমরা দিবো। এই কথা শোনার পর মনে একটু আশ্বাস পেলাম। এস.এ/জেসি
 

এই বিভাগের আরো খবর