শুক্রবার   ২১ জানুয়ারি ২০২২   মাঘ ৮ ১৪২৮

আইনজীবীদের মর্যাদা ও অধিকার আদায়ের স্বার্থে আনোয়ার-জসিম পরিষদ

প্রকাশিত: ১১ জানুয়ারি ২০২২  

গতকাল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নির্মিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ভাস্কর্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাতীয় কমিটির অন্যতম সদস্য এড. আনিসুর রহমান দিপু ও আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক এড. হাবীব আল মুজাহিদ পলুকে নিয়ে আনোয়ার-জসিম পরিষদ পুস্

গতকাল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নির্মিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ভাস্কর্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাতীয় কমিটির অন্যতম সদস্য এড. আনিসুর রহমান দিপু ও আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক এড. হাবীব আল মুজাহিদ পলুকে নিয়ে আনোয়ার-জসিম পরিষদ পুস্

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ আইনজীবীদের মর্যাদা ও অধিকার আদায়ের রক্ষার্থে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির ( ২০২২- ২০২৩) সালের কার্যকরী পরিষদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ও গণতান্ত্রিক আইনজীবী পরিষদ মনোনীত এড. আনোয়ার হোসেন ও এড. মো. জসিম উদ্দিন পরিষদের পূণ্য প্যানেল না দিলে গুরুত্বপূর্ণ ৬টি পদে নির্বাচন করছে।  প্রাথীরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর মধ্যে দিয়ে নির্বাচনী প্রচার- প্রচারনা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করেছেন। গতকাল সকাল ১০টা দিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নির্মিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ভাস্কর্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাতীয় কমিটির অন্যতম সদস্য ও  জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. আনিসুর রহমান দিপু ও আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদব এড. হাবীব আল মুজাহিদ পলুকে নিয়ে আনোয়ার- জসিম পরিষদ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে তারা নারায়ণগঞ্জ আদালত পাড়ায় প্রচারনা চালিয়ে আইনজীবীদের কাছে ভোট প্রার্থণা করেন। পরে আইনজীবী সমিতির সামনে প্রার্থীদের পরিচিত করেন।

পরিচিতি কালে সভাপতি প্রার্থী এড. আনোয়ার হোসেন বলেন, আজকে ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ নয় মাসরে রক্তক্ষণী যুদ্ধের মধ্যে দিয়ে স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছিলো। যার জম্ম নাহলে বাংলাদেশ হতো না সেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু আজকের এই দিনে পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে দেশে প্রর্দাপন করেন। আমাদের এই প্যানেল আমরা দাঁড়িয়াছি আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মী। আমরা যারা এই প্যানেলের চয় জন রয়েছি আমরা ছাত্র অবস্থায় ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামীলীগের রাজনীতি করছি। ইতিপূর্বে আমরা নারায়ণগঞ্জ বারেও নির্বাচন জয়লাভ করেছি। আমরা যারা ত্যাগী নেতারা রয়েছি তারা অনেকটাই কোনঠাসা । সেই প্যানেল থেকে বের হয়ে আমরা যারা প্রকৃত পক্ষে বঙ্গবন্ধুর সৈনিক সেই ৬জন মিলে একটা প্যানেল তৈরি করে নির্বাচনে প্রতিদ্বান্দ্বতা করছি। তিনি আরও বলেন, আমরা আজকে জাতির পিতার ভাস্বর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে আমরা আমাদের নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করলাম।  আমরা বিশ্বাস করি নারায়ণগঞ্জে ১২শ আইনজীবীর মধ্যে প্রত্যকের আমাদের সমর্থন আছে। আমরা সংখ্যায় কম হলো আইনজীবী আমাদের ব্যক্তিগতভাবে যেভাবে সাড়া দিচ্ছে , উৎসাহ ও উদ্দীপনা দিচ্ছেন। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি ১৮ জানুয়ারি নির্বাচনে যদি ফেয়ার ও সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন হয় আর কোনো পেশী শক্তি ব্যবহার না করতে পারে তাহলে ইনশাল্লাহ আমরা বিপুল ভোটে নির্বাচিত হবো। আমরা নির্বাচনের মাঠে আছি এবং থাকবো লড়াই করে যাবো। নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবীদের ভোটাররা তাদের নিজেদের স্বার্থে আমাদের প্যানেলকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবে বলে আমার বিশ্বাস।

সাধারন সম্পাদক প্রার্থী এড. মো. জসিম উদ্দিন বলেন, বিগত তিন বছর ধরে আইনজীবীরা তাদের সুচিন্তিত মতামত প্রকাশ করতে পারে না, তারা ভোটও দিতে পারে নাই। এর প্রতিবাদ স্বরূপ আমরা প্যানেল দিয়েছি। আমরা একটা কথাই বলতে চাই আমরা নির্যাতিত ও নিপিড়িত এবং আমরা বঞ্চিত। আমরা আইনজীবীদের মর্যাদার অধিকার আদায়ের রক্ষার্থে এই প্যানেল দিয়েছি। আইনজীবী ভাই - বোনদের কাছে আমাদের একটাই অনুরোধ আসুন নির্বাচনের এই ভোট যুদ্ধে অবর্তীন হয়ে আগামী ১৮ জানুয়ারি নির্বাচনে যার যার সুচিন্তিত মতামত প্রকাশ করি। আমাদের পূর্ণ প্যানেলকে ভোট দিয়ে বাংলাদেশর উন্নয়নরে এই যাত্রাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাই।

যুগ্ম সাধারন সম্পাদক প্রার্থী এড. মামুন সিরাজুল মজিদ বলেন, আমরা কোনো এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি তা সাধারন আইনজীবীরা জানেন। আমাদের এই নির্বাচন অতীতের মতো নয়। এই নির্বাচনের প্রেক্ষাপট আপনারা সবাই তা জানেন। তিনি আরও বলেন, আমরা যারা এই প্যানেলে নির্বাচন করছি আমাদের প্রত্যকটি প্রার্থীরই রাজনৈতিক ইতিহাস রয়েছে। সুতারাং আমরা উড়ে এসে- জুড়ে বসিনি। আমরা একটা নীতি আদর্শকে লালন করেই রাজনীতি করি। আমাদের এই নির্বাচন হচ্ছে নীতির ও আদর্শের নির্বাচন।  আমরা এই বিশ্বাস রাখতে চাই ও করি। আমাদের আইনজীবী সমাজ অত্যন্ত সচেতন সমাজ। এই আইনজীবী সমাজ তাদের ভোট যথাযর্থ জায়গায় মনোনীত প্রার্থীকেই দিবে। আমরা আনোয়ার- জসিম প্যানেল সাধারন আইনজীবীদের মন জয় করতে পারবো। আর আইনজীবীব সমাজ অত্যন্ত বিচেক্ষণ সমাজ। এই সমাজ সুচিন্তিত মতামত অবশ্যই যোগ্য ও প্রাথীকেই দিবে বলে আমার বিশ্বাস।

কোষাধ্যক্ষ প্রার্থী এড. মো.রোমেল মোল্লা বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরেই যেভাবে ভোট ছিনিবিনি খেলা চলছে। এতে করে আইনজীবীদের সম্মান রক্ষা হচ্ছে না। আইনজীবীদের সেই সম্মান রক্ষার্থে আমরা আইনজীবীরা আজ ঐক্যবদ্ধ। আইনজীবীদের সম্মন ও মূল্যয়ান রক্ষার্থে এবং নারায়ণগঞ্জ বারকে বহিরাগত মুক্ত, সন্ত্রাসীরা যাতে হানা দিতে না পারে সেই লক্ষ্যেই আমাদের এই প্যানেল দাঁড়িয়েছি। আশা ও আখাংকার প্যানেল আনোয়ার- জসিম পরিষদে ভোট প্রার্থনা করছি। উল্লেখ্য, আগামী ১৮ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এবারও প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন সিনিয়র আইনজীবী এড. শামসুল ইসলাম ভূ্ইঁয়া। নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ মনোনীত প্যানেল ও বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সমর্থিতও সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ মনোনীত দুুটি প্যানেলও এবার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

এই বিভাগের আরো খবর