রোববার   ২১ জুলাই ২০২৪   শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

আইভী এমপি হলে মেয়র হবেন কে

যুগের চিন্তা রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

 

# আমার এমপিগিরি করতে হবে : আইভী
# ভোটের মাঠে খেলা হবে : সেলিম ওসমান

 

 

খুব নিকটে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন দরজায় কড়া নাড়ছে। এই নির্বাচন ঘিরে আওয়ামী লীগ বিএনপির মাঝে ব্যাপক আলোচনা চলছে। বিএনপি বলছে তাদের বাদ দিয়ে সরকাকে কোন ভাবে নির্বাচন করতে দেয়া হবে না। অপরদিকে আওয়ামী লীগ বলছে সংবিধান অনুযায়ী সঠিক সময়ে নির্বাচন হবে। তারই ধারাবাহিকতায় ইতোমধ্যে ক্ষমতাসীন দল নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

 

কিন্তু বিএনপি আন্দোলনে থেকেই নির্বাচনের মাঠে সক্রিয় রয়েছে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তবে নারায়ণগঞ্জ ৫টি আসনের মাঝে সদর বন্দর নিয়ে গঠিত নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনটি গুরুত্বপূর্ণ। নির্বাচন আসলেই এই আসনটি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা তৈরী হয়। তাই আগামী নির্বাচন ঘিরেও এখানে কে সংসদ সদস্য হতে যাচ্ছেন তা নিয়ে চলছে আলোচনা।

 

এদিকে দীর্ঘদিন যাবৎ নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনটি জাতীয় পার্টির দখলে রয়েছে। তাই জাতীয় পার্টি থেকে উদ্ধারের জন্য স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ নৌকার প্রার্থী দেয়ার জন্য দলীয় সভানেত্রীর কাছে দাবী জানিয়ে আসছেন। এছাড়া এই আসনে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা অবহেলিত হয়ে রয়েছে বলে তারা বিভিন্ন সময় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

 

জাতীয় পার্টিকে তারা ছাড় দিতে নারাজ। ইদানিং জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সেলিম ওসমানও নির্বাচনের ঘোষনা দিয়ে মাঠ না ছাড়া ঘোষনা দিয়েছেন। সেই সাথে আওয়ামী লীগের এমপি তার ছোট ভাই শামীম ওসমানে ডায়লগের সাথে সুর মিলিয়ে তিনিও বলেন ভোটের মাঠে খেলা হবে।

 

অপরদিকে জাতীয় পার্টিকে ঠেকাতে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে একাধিক প্রার্থী নৌকার মনোনয়ন চেয়ে যাচ্ছেন। সেই অনুযায়ী তারা জোরালো ভাবে নৌকার দাবী জানিয়ে আসছেন কেন্দ্রীয় নেতাদের মাঝে। কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দও তাদের আশ্বাস দিচ্ছেন। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মাঝে আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য এড. আনিসুর রহমান দিপু, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহিদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা।

 

সদ্য গত সোমবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন বাজেট অধিবেশনে নাগরিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে এক পর্যায়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, মেয়র গিরি আমার অনেক হইছে। এবার এমপি মনোয়ন চাওয়ার সময় হয়েছে। প্রয়োজনে এমপি গিরি করবো। নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে মনোনয়ন চাইবো। এই প্রথম মেয়র আইভী এমপি গিরি করার ঘোষনা দিয়েছেন প্রকাশ্যে। যা নিয়ে রীতিমত রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক ভাবে আলোচনা তৈরী হচ্ছে।

 

তাছাড়া নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে জাতীয় পার্টি প্রেসিডিয়াম সদস্য সেলিম ওসমান সংসদ সদস্য হিসেবে রয়েছেন। মেয়র আইভী এই আসনে নৌকার মনোনয়ন চাওয়ার ঘোষনা দেওয়ায় তিনি যদি এমপি নির্বাচান করতে চান তাকে মেয়র থেকে পদত্যাগ করতে হবে। সচেতন মহল থেকে প্রশ্ন উঠেছে মেয়র আইভী যদি নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে এমপি নির্বাচিত হয়ে যান তাহলে সিটি করপোরেশনের মেয়র কে হবেন।

 

তিনি যদিও আসলেই সদর বন্দর এলাকায় নির্বাচন করেন তাহলে এখানকার বর্তমান এমপি সেলিম ওসমানের কপাল পুড়তে পারে বলে মনে করেন রাজনৈতিক বোদ্ধমহল। তিনি যদি এমপি গিরি করেন তাহলে তার জায়গায় কে আসবে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কেননা মেয়র হওয়ার জন্য তিনি কাকে পছন্দ করেন তার বলয় থেকে কে আসবে তা নিয়েও জল্পনা কল্পনার শেষ নেই।

 

জানা যায়, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি নিজেকে জানান দিতে শুরু করেছেন। তাকে ঘিরে নির্বাচনী এলাকায় শোডাউনও পরিলক্ষিত হচ্ছে। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের বিভিন্ন বক্তব্যকে তিনি তেমন একটা গায়ে মাখছেন না। তাদের বক্তব্যের পাল্টা জবাব দিচ্ছেন না। তবে মাঝে মধ্যে একেবারে খালি মাঠেও তাদেরকে ছেড়ে দিচ্ছেন না। নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আগামীতেও বর্তমান এমপি সেলিম ওসমান নির্বাচন করার ঘোষনা দিয়েছেন।

 

বন্দরের এক অনুষ্ঠানে গিয়ে সাংসদ সেলিম ওসমান বলেন, আমার যদি দম থাকে আল্লাহ যদি আমাকে হায়াত দেন, আমার আপা যদি বলে আমাকে নির্বাচন করতে পৃথিবীর কোনো শক্তি পারবে না আমাকে নির্বাচন থেকে সরাতে। অক্টোবর মাসে বসবো নভেম্বর মাসে সিদ্ধান্ত জানাবো ডিসেম্বরে কাজ করবো জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে আমরা নির্বাচন করবো। আসেন কে কে আসবেন আসেন। আমি শামীম ওসমানের মতো বলতে পারবো না খেলা হবে। খেলা মাঠে হবে না খেলা ভোটে হবে।

 

তিনি আরও বলেন, কেউ কেউ বলে সেলিম ওসমান অসুস্থ নির্বাচন করবেন না। উনি কাউকে সিটটা দান করে দিবেন। আমার কাছে এলাকার একজন মানুষ যদি বলে নির্বাচন করেন, আমার মান যাবে না ইজ্জত যাবে জানি না আমি নির্বাচন করবো। কেউ নোংরামি কইরেন না বইলেন না আমি নির্বাচন করবো না। আরে বাপের বেটা হলে নির্বাচন করো। আর না হলে করো না।

 

যারা নির্বাচন করবে তাদের বাধা দাও কেন? আমি কোনো বিএনপি নিয়ে বলছি না। অন্য জায়গায় কি হচ্ছে গুলি মারেন। আমাদের এখানে পলিটিক্স করার দরকার নেই। এভাবেই নির্বাচনী এলাকায় নিজের সরবতার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নীরব জবাব দিয়ে যাচ্ছেন।

 

সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, আমি সাংবাদিকদের নিয়ে কথা বলতেই চাই না। এরা সব দুর্নীতিবাজ অটো থেকে স্টিকার লাগিয়ে চাঁদা তুলে খায়। পুলিশও নাকি স্টিকার লাগিয়ে টাকা খায়। এটা যদি সত্য হয় তাহলে প্রতিবাদ করতেই হয়। যখন আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ্য হতে চাচ্ছি তখন কেউ কেউ এই সমস্ত কথা বলে কেন। যাদের নির্বাচন করার জন্য আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের ১৪০ নেতা এখানে আসলেন। তখন তিনি বললেন আমি নাকি তার বড় ভাই। আমাদের মাঝে কোন দ্বন্দ্ব নেই। এখন আবার আরেক কথা বলেন। আমি খন্দকার মোশতাকদের ভয় পাই।

 

এর আগে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের আওয়ামী লীগের মমোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী লীগের জাতীয় পনিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু বলেন, এখানে রেষারেষির কি আছে? উনার রাজনীতি উনি করবেন আমাদের রাজনীতি আমরা করবো। আমরা তো এরশাদের রাজনীতি করি না। আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি।

 

একইভাবে সেলিম ওসমানের এই বক্তব্যের কড়া ভাষায় জবাব দেন আওয়ামী লীগের আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী আনোয়ার হোসেন। যিনি নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং যাকে সেলিম ওসমান গুরু হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকেন।আনোয়ার হোসেন বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, আওয়ামী লীগকে আজ অনেকে হুমকি দেয়।

 

খয়রাতি এমপিরা এখন আওয়ামী লীগকে বলেন রেষারেষি করবেন না। রেষারেষি করলে না কি আওয়ামী লীগের খবর আছে? আমরা বলতে চাই, খবর আপনাদের আছে। আজকে আওয়ামী লীগকে ব্যবহার করে, বঙ্গবন্ধুকে ব্যবহার আপনারা এমপি হয়েছেন। বঙ্গবন্ধু খুনিদের আশ্রয় প্রশ্রয় আপনারা দিচ্ছেন। আপনাদের ব্যবহার করে পাড়া মহল্লা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অবস্থান নিচ্ছে।

 

সর্বোপরি সোমবার মেয়র আইভী বাজেট অধিবেশনে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, নারায়ণগঞ্জের ডিসি ও এসপি দুই এমপির কথায় চলে। আমাদের কথা নগরবাসীর কথা চিন্তা করে কম। যদি সব সময়ে এমনই হতে থাকে তাহলে তো আমার এমপিগিরি করতে হবে। প্রয়োজনে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে মনোনয়ন চাইবো। তাই নগরবাসী এখন তাকিয়ে রয়েছে আসলে তিনি নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে নির্বাচন করে কি না। করলেও পরবর্তীতে দেখা যাবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র কে হন। এস.এ/জেসি 

এই বিভাগের আরো খবর