বৃহস্পতিবার   ১৩ মে ২০২১   বৈশাখ ২৯ ১৪২৮

ঈদের আগে শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করতে হবে: পলাশ

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ২ মে ২০২১  

জাতীয় শ্রমিকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক কাউসার আহম্মেদ পলাশ বলেন, আমরা এদেশে শ্রমজীবী মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করবো। যে শ্রমিকরা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে উপার্জন করে থাকে। আমাদের দাবী ঈদের আগে তাদের সমস্ত বেতন ভাতা ও বোনাস পরিশোধ করতে হবে। আমার শ্রমিকরা যাতে আনন্দ উল্লাসে ঈদ করতে পারে। আর ঈদের মধ্যে যদি কোন ফ্রাক্টরী শ্রমিকদের পাওনা নিয়ে টালবাহানা করে থাকেন তাহলে আপনারা ভাববেননা আমরা রাজপথে নামবোনা। প্রয়োজনে আপনাদের বাড়ী ঘেরাও করে বসে থাকবে আমাদের শ্রমিকরা।


শনিবার (১লা মে) বিকেলে ফতুল্লার আলীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মহান মে দিবস উপলক্ষে জাতীয় শ্রমিক লীগ ফতুল্লা আঞ্চলিক শাখা আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। 


পলাশ আরো বলেন, এই বাংলার মাটিতে এখনো ষড়যন্ত্র চলছে। ৭১ এ স্বাধীনতার যুদ্ধের সময় এক শ্রেণীর হুজুররা ও ধর্ম ব্যবসায়ীরা বলেছিলো দেশ হিন্দু হয়ে যাবে। তারা বলেছিলো আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে মসজিদে উলুধ্বনি চলবে। আমি বলতে চাই বিশ্বের ইতিহাসে প্রথম এই বাংলাদেশে থানায় থানায় ৫৬০টি মডেল মসজিদ তৈরী করতে বিগ বাজেটের সিদ্ধান্ত নিয়েছে এই সরকার। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে আজ আওয়ামীলীগ কত বছর যাবৎ ক্ষমতায়? এই দেশতো ভারতের কাছে বিক্রি হয়নি। উল্টো ভারতের কাছ থেকে আওয়ামী লীগ সরকার অনেক কিছুই আদায় করে নিয়েছে। শুধু তাই নয় আমাদের বর্ডারে যে হরহামেশা গুলি চলতো সে গুলিও বন্ধ করেছে শেখ হাসিনা সরকার। আমি আপনাদের আগাম একটা কথা বলে রাখি, ইনশাআল্লাহ তিস্তার পানি এই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে চুক্তি হবে এবং এই বাংলার মাটিতে এই বছরের মধ্যে তিস্তার পানি আসবে। আমরা আগামী দিনে জননেত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বে এই দেশকে আরো উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে গড়ে তুলবো।


তিনি আরো বলেন, হেফাজতের এই সহিংসতায় সারাদেশে ১৭টি প্রাণ চলে গিয়েছে তাদের কোন খবর নেই। তিনি চলে গিয়েছেন সোনারগাঁয়ে রিলেক্স করার জন্য। অথচ যাদের উস্কে দিয়ে এই সহিংসতায় নামিয়ে দেয়া হয়েছে তাদের পরিবারের দিকেও কোন খোঁজখবর রাখেনি তারা। এই ধরনের ধর্মব্যবসায়ীদের আমাদের বয়কট করা উচিত।


জাতীয় শ্রমিক লীগ ফতুল্লা আঞ্চলিক শাখার সাধারণ সম্পাদক এস এম হুমায়ুন কবির এর সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার জাহাঙ্গীর আলম, জাতীয় শ্রমিকলীগ ফতুল্লা আঞ্চলিক শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম, ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স জেলা শাখার সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সেন্টু, জেলা ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া সাত্তার ও ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রাহাত প্রমুখ।
 

এই বিভাগের আরো খবর