বুধবার   ১৯ মে ২০২১   জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৮

করোনা হাসপাতালে খালি নেই আইসিইউ

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ১১ এপ্রিল ২০২১  

 নারায়ণগঞ্জ কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৯ জন। এ রোগীদের জন্য এই হাসপাতালে নির্ধারিত সাধারণ শয্যা আছে ১১০ টি। গতকাল রোগী ভর্তি ছিল ৭০ জন। করোনা রোগীর জন্য এই হাসপাতালে ১০ বেডের আইসিইউ ছাড়া সরকারি ভাবে এই জেলায় আর নেই। এই হাসপাতালে ফ্লো নাজাল ক্যানোলা আছে ১০টি। ফলে এখানে আইসিইউ বেড খালি না থাকায় গুরুতর করোনা রোগী এলেও তাদেরকে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। অন্যদিকে প্রতিদিনই আইসিইউ পাওয়ার জন্য রোগীর স্বজনরা খোজ নিচ্ছে হাসপাতালে। মিলছে না আইসিইউ, রোগীর স্বজনরা রিতিমতো কান্নাকাটি করছেন একটি আইসিইউর জন্য। 
হাসপাতালের চিকিৎসা তত্ত্বাবধায়ক আবুল বাসার জানান, প্রশিক্ষিত লোকবলসহ সেন্টাল অক্সিজেন থাকলে করোনা রোগীদের আরো উন্নত সেবা দেয়া সম্ভব হতো। রোগীরা একেবারে শেষ মুহুর্তে হাসপাতালে আসছেন। তখন আর কিছু করার থাকে না। জানাগেছে, অধিকাংশ রোগী বাসায় থেকে চিকিৎসা নেন। শ্বাসকষ্টের মতো জটিলতা শুরু হলে তারপর হাসপাতালে আনা হয়। তখন আইসিইউ ও ভেন্টিলেটর সুবিধা না থাকায় গুরুতর এই রোগী রেফার করে দিতে হয়। তবে আজ থেকে এই হাসপাতালে সেন্টাল অক্সিজেনের কাজ শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। তখন অক্সিজেন সমস্যাটা আর থাকবে না।  
জানা গেছে, কিছুদিন ধরে এই হাসপাতালে নতুন রোগী বাড়ছে। এরমধ্যে এক সপ্তাহের ব্যবধানে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে দ্বিগুনেরও বেশী। অনেক ক্ষেত্রে জটিল করোনা রোগীদের আইসিইউ’র চেয়েও উচ্চমাত্রায় অক্সিজেন সরবরাহের প্রয়োজন বেশী হয়। এই জন্য হাসপাতালে পর্যাপ্তসংখক অক্সিজেন সরবরাহের যন্ত্র হাই ফ্লো নাজাল ক্যানোলা থাকা প্রয়োজন। দশজন আইসিইউ রোগীর জন্য হাই ফ্লো নাজাল ক্যানুলা রয়েছে। আর নরমাল রোগীদের জন্য রয়েছে বোতল অক্সিজেন। গতকাল আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন আইসিইউর চিকিৎসক জাকারিয়া।     
উল্লেখ্য, অক্সিজেনের অভাবে খানপুর কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালে মমতাজ বেগম (৫১) নামের এক নারীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় নিহতের স্বজনরা উত্তেজিত হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পুলিশের হস্তক্ষেপ নিয়ে ঘটনা সামাল দিয়েছে। নিহত মমতাজ জালকুড়ি পশ্চিম পাড়া এলাকার মো. জয়নাল আবেদীনের স্ত্রী। 
নিহতের পুত্র মো. সৌরভ জানান, তার মা করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর গত মাসের ২৯ তারিখে কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড এই হাসপাতালে ভর্তি করেন। তারপর তারপর মমতাজ বেগমকে আইসিইউতে হস্তান্তর করা হয়। কিন্তু আইসিউইতে নেয়ার পর থেকেই অক্সিজেন সংকট শুরু হয়। ওই সময় থেকেই অক্সিজেন সংকট তীব্র আকার ধারন করে। পরবর্তিতে ওই দিন বিকাল তিনটার দিকে মারা যায় মমতাজ বেগম। 

এই বিভাগের আরো খবর