মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১   কার্তিক ৩ ১৪২৮

গৃহবধূকে ছুরিকাঘাতে আটক দুই শ্বাশুড়ী

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০২১  

ফতুল্লায় তিন লাখ টাকা যৌতুকের দাবীতে এক গৃহবধুকে পিটিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত জখম করার অপরাধে স্বামী ও পরিবারের অন্য সদস্যদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানা যায়। 

 

বুধবার (৬ অক্টোবর) ফতুল্লার কুতুবপুর ইউনিয়নের ভুইঘর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দিবাগত মধ্যরাতে গৃহবধূর শ্বাশুড়ি তাহমিনা ইসলাম সেলি (৫৫) ও খালা শ্বাশুড়ি সুব্রা (৪০) কে আটক করেছে পুলিশ।


মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৯ এপ্রিল পারিবারিক সম্মতিক্রমে ফতুল্লা থানার ভুইঘর সরদার বাড়ীর মো. তোফায়েল আহম্মেদ লিটনের পুত্র রাফসান সাদের সাথে বাদীর বিয়ে হয়। বিয়ের সময় নগদ ৫০ হাজার টাকা স্বর্নালংকারসহ প্রায় আড়াই লক্ষাধিক টাকার আসবাব পত্র প্রদান করা হয়। তাদের সংসারে সাবাব(৬) ও আব্দুল্লা(১) নামক দুটি সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবীতে তাকে শারিরীক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করে আসছিলো স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। 


তাদের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে এবং নিজের সুখের কথা চিন্তা করে বাদী তার পিত্রালয় হতে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা এনে দেয়। পরবর্তীতে আরও তিন লক্ষাধিক টাকা বাবার বাড়ি থেকে নিয়ে আসার জন্য বাদীকে চাপ প্রয়োগ করে। বাদী তাদের দাবীকৃত টাকা এনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সোমবার(৪ অক্টোবর) রাত সাড়ে দশটার দিকে বাদীর স্বামী বাদীকে বেদম প্রহার সহ হাতে থাকা ছুরি দিয়ে চোখের উপরি ভাগে আঘাত করে। এ সময় আটককৃতরা বাদীকে গালমন্দ করে।


এর আগে গৃহবধূ বাদী হয়ে স্বামী রাফসান সাদ(৩০), শ্বাশুড়ি তাহমিনা ইসলাম সেলি ও খালা শ্বাশুড়ি সুব্রাকে অভিযুক্ত করে যৌতুকের দাবীতে তাকে মারধর করার অভিযোগ এনে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। নির্যাতিত গৃহবধূ নাম রিতা আক্তার(২৫। তিনি মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী থানার পাঁচ গাও গ্রামের আব্দুল গফুর মোল্লার মেয়ে।

 

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে শ্বাশুড়ি তাহমিনা ইসলাম সেলি ও খালা শ্বাশুড়ি সুব্রাকে আটক করা হয়েছে। তাদেরকে ইতিমধ্যে আদলতে প্রেরন করা হয়েছে। মামলার অপর আসামীকে আটকের চেস্টা করা হচ্ছে।

এই বিভাগের আরো খবর