শনিবার   ৩১ জুলাই ২০২১   শ্রাবণ ১৬ ১৪২৮

জলাবদ্ধতা থেকে কবে মুক্তি পাবে ফতুল্লাবাসী

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ১৩ জুলাই ২০২১  

# সিটি করপোরেশন অথবা ডিএনডি প্রজেক্টে না নিলে জলাবদ্ধতা থেকে যাওয়ার আশঙ্কা


পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর পিছটানে ডিএনডির ফতুল্লাবাসীর মাঝে আবারও দুশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে। গত রোববার তিনি ফতুল্লার যে অংশটিতে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা হচ্ছে এবং যে কারনে এই জলাবদ্ধতা হচ্ছে সেটা দেখতে আসার কথা ছিলো। কিন্তু তিনি আসলেন না। গতকাল দৈনিক যুগের চিন্তায় এই রিপোর্ট প্রকাশ হলে ফতুল্লার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ হতাশা প্রকাশ করেছেন।

 

এই অঞ্চলের মানুষ মনে করেন ফতুল্লায় গত কয়েক বছর ধরে যে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে তার মূলে রয়েছে সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমানের ব্যার্থতা। কারন তিনি নিজেই ফতুল্লার সকল প্রকারের উন্নয়নের দায়িত্ব নিজের কাধে তুলে নিয়েছেন। আর এ কারনেই তিনি ফতুল্লাকে ডিএনডি প্রজেক্টে ঢুকতে দেননি, আবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনেও ঢুকতে দেননি। ফলে যা হবার তাই হয়েছে। ফতুল্লা সব দিক থেকে পিছিয়ে পরেছে উন্নয়নে। কেবল পিছিয়েই পরেনি বরং বসবাসের অযোগ্য এলাকায় পরিনত হয়েছে।

 

তাই যখন ফতুল্লার বিশাল এলাকা পানির নিচে ডুবে আছে এবং মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে তখন শামীম ওসমানের টনক নড়েছে। তিনি আমেরিকায় দীর্ঘ ভ্রমন শেষ করে এসে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে পর পর দুটি আলোচনা সভা করেন। প্রথম আলোচনা সভায় মন্ত্রী টেলিফোনে বক্তব্য রাখেন এবং তিনি নিজেই গত রোববার আসবেন বলে জানান। শামীম ওসমান মোবাইলে সবাইকে মন্ত্রীর বক্তব্য শোনান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মন্ত্রী কেনো এলেন না সেটা বুঝা যাচ্ছে না। তাই মন্ত্রী না আসায় ফতুল্লার অনেকেই চিন্তিত হয়ে পরেছেন।

 

তবে ফতুল্লাবাসী মনে করেন মন্ত্রী আসুক বা না আসুক ফতুল্লায় পরিকল্পিত উন্নয়নের কোনো বিকল্প নেই। তাই শামীম ওসমানকে যে কাজটি করতে হবে সেটা হলো হয় তাকে ডিএনডির ফতুল্লা এলাকাকে ডিএনডি প্রজেক্টের ভেতর ঢুকাতে হবে, অন্যথায় সিটি করপোরেশনের আওতায় নিতে হবে। অন্যথায় আগামী বর্ষায় আরো খারাপ পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। 
 

এই বিভাগের আরো খবর