মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪   জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪৩১

‘ত্বকী-সাত খুন কাদের কাজ আমরা সবাই জানি’

যুগের চিন্তা রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২৪ মে ২০২৩  

 

# তিনি মৃত্যুকে ভয় করেন না কিন্তু সুষ্ঠু নির্বাচনকে ভয় করেন

 

 

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘ওরা (ক্ষমতাসীন দল) পুলিশের বেষ্টনিতে দাঁড়িয়ে থেকে পুলিশ দিয়ে আমাদের আক্রমণ করে। আইনি অস্ত্র দিয়ে আমাদের ঘায়েল করে। আমরা খালি হাতে লড়তে নামি। আমরাই প্রকৃত সাহসী যে অপশক্তির বিরুদ্ধে খালি হাতে লড়াই করি। আজ খালেদা জিয়া বন্দি, তারেক রহমান দেশের বাইরে। আপনারা তাদের ফিরিয়ে আনার লড়াইয়ে নামুন। নারায়ণগঞ্জে অনেক অনিয়ম হয়।

 

এই জেলায় সবচেয়ে বেশি প্রতিবাদ করে বিএনপি। এখানে নিষ্পাপ শিশু ত্বকীকে জীবন দিতে হয়েছে। শীতলক্ষ্যায় সাতটি লাশ ভেসে উঠেছে। এগুলো কাদের কাজ আমরা সবাই জানি। সুতরাং সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমাদের সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পরতে হবে। আমরা গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনব, নির্বাচন ফিরিয়ে আনবো। এটাই আমাদের অঙ্গীকার। গতকাল মঙ্গলবার (২৩ মে) বিকেলে শহরের খানপুর ৩শ’ শয্যা হাসপাতালের সামনে মহানগর বিএনপির পদযাত্রাপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে অংশ নিয়ে একথা বলেন তিনি।

 

রিজভী বলেন, আমরা কারও জীবন নিতে চাই না। কাউকে আঘাত করতে চাই না। আমরা চাই শেখ হাসিনার শাসন ব্যবস্থার অবসান হোক। একটি নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই। সেখানে দেশের জনগণ যাকে ভোট দিবে তিনিই সরকার গঠন করবে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন আমি কাউকে ভয় করি না। তিনি মৃত্যুকে ভয় করেন না কিন্তু উনি সুষ্ঠু নির্বাচনকে ভয় করেন। তিনি বলেন, আজকে উনি ( প্রধানমন্ত্রী ) নাইকো মামলার শুরু করেছে। এই নাইকো মামলার প্রধান আসামি ছিলেন (প্রধানমন্ত্রী) নিজেই। উনি রাষ্ট্রক্ষমতা জোরে উনার নাম বাদ দিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ কয়েক জনের নাম দিয়ে বিচার করছে।

 

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনার হিংসা পরানের বিচার। আজকে উনি এই মামলা নেই কেন উনি আদালতকে নিয়ন্ত্রণ করে। উনি পুলিশ র‌্যাব নিয়ন্ত্রণ করেন। উনাকে সবাই ভয় পায়। আজকে এ জবর দখল সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করছে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন। আপনারা সবাই ঐক্যবদ্ধ হোন। আমাদের এই জবর দখল সরকারকে আগে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে। আমরা সাচ্চা কর্মী বিপ্লবী কর্মী। ওরা পুলিশ সাথে নিয়ে হামলা করে। আমাদের হাতে তো অস্ত্র নেই। আমরা খালি হাতে আন্দোলন করি। তাহলে কিন্তু আমরাই সাহসী।

 

তিনি আরও বলেন, আজ সারাদেশে পদযাত্রা হচ্ছে। আপনাদের ভাইয়েরা গুলিবিদ্ধ হচ্ছে। হাত-পা হারাচ্ছে। আর আপনারা নিজেদের মধ্যে মারামারি করছেন। কেন করছেন। আমাদের ওপর দুর্যোগ আসছে৷ লাখ লাখ মামলা। হাজার হাজার নেতাকর্মী কারাগারে। আর আপনারা এখানে মারামারি করছেন। প্লিজ লোক হাসাবেন না। আপনারা সবাই যুবদল ছাত্রদল করেন বিএনপি করেন। পুলিশের গুলি ধারণ করে আপনাদের ভাই মারা যাচ্ছে না। শাওন মারা গেছে, সে কী চুরি ডাকাতি করেছিল। পুলিশ ঠান্ডা মাথায় গুলি করে তাকে হত্যা করেছে। আমাদের মধ্যে কোন হিংসা পড়ানো নেই।

 

আমরা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে দেশের নির্বাচন ব্যবস্থা ফিরে আনবা এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো এবং দেশনায়ক তারেক রহমানকে দেশে ফিরে আনবো। এটি হলো আমাদের অঙ্গীকার। নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এড. সাখাওয়াত হোসেন খানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপুর সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বিশেষ অতিথি বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির (ঢাকা বিভাগীয়) সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আব্দুস সালাম আজাদ, বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজীর আহমেদ টিটু, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ।

এস.এ/জেসি
 

এই বিভাগের আরো খবর