সোমবার   ১৪ জুন ২০২১   জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪২৮

ত্রাণ দিতে গিয়ে ভিক্ষুককে বিয়ে

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২০  

করোনাভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে লকডাউন চলছে। এতে কাজ হারিয়ে অসহায় জীবন যাপন করছে নিম্নবৃত্তরা। এরকম দুস্থদের খাবার দিতো এক যুবক। অসহায় এইসব মানুষদের খাবার দিতে গিয়ে এক ভিক্ষুককে ভালো লেগে যায় এই যুবকের। এরপর আলাপ-প্রেম। শেষ পর্যন্ত বিয়ে করে ফেলেন এই যুবক সেই ভিক্ষুককে। এ ঘটনা ভারতের কানপুরে। খবর সংবাদ প্রতিদিন।


জানা যায়, রিকসা চালক অনিল। লক ডাউনে অসহায় মানুষদের নিজের সামর্থ অনুযায়ী সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন তিনি।


এদিকে নীলামের বাবা মারা যাওয়ার পর দাদা আর বউদি খুব করে পেটাত। এক রাতে বাড়ি থেকেই বের করে দেয় নীলাম আর ওর মা’কে। মা এদিকে প্যারালাইসড। এরই মধ্যে লকডাউনে চরম বিপদে পড়ে মা-মেয়ে। ভিক্ষে করা ছাড়া অন্য কোনও পথ নেই।


ভিক্ষে করতে গিয়ে নীলামের সাথে পরিচয় হয় অনিলের। নীলামদের পাশে দাঁড়ায় অনিল। ত্রাণ দিয়ে সহযোগিতা করে। নিজে হাতে রেঁধে মা-মেয়ের জন্য খাবার নিয়ে যেত অনিল। সেখান থেকেই আলাপ, বন্ধুত্ব, প্রেম। আর সেই থেকে বিয়ে। লকডাউনের নিয়ম মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই বিয়ে হয় তাদের।