শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১   আশ্বিন ২ ১৪২৮

নগরীর সবুজায়নে সফল নাসিক মেয়র আইভী

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০২১  

বিগত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের (নাসিক) নির্বাচনের পূর্বে বাসযোগ্য পরিবেশবান্ধব নগরী গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। নগরীতে সবুজায়ন করে সেই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেছেন তিনি। উদ্ধার করেছেন বেশ কয়েকটি খাল ও জলাশয়। নির্মাণ করেছেন পরিবেশবান্ধব পার্ক, উন্মুক্ত স্থান।

 

নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে সড়কের পাশে, খালি জায়গায় রোপণ করেছেন লক্ষাধিক বৃক্ষের চারা। সেসব পরিচর্যাও করা হচ্ছে সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে। নাসিক সূত্রে জানা যায়, নগরীতে দূষণ কমাতে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি প্রকল্প এখনও চলমান রয়েছে। ২০০৩ সাল থেকে নারায়ণগঞ্জ শহরের অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করছেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। ৮ বছর নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান ও মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বিগত দুই দফায় টানা ১০ বছর নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

 

বিগত বছরগুলোতে অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি সবুজ ও পরিকল্পিত নগর গড়তে কাজ করেছেন সিটি মেয়র ডা. আইভী। খাল, জলধার দখল ও দূষণমুক্ত করে সংরক্ষণ, বিনোদনের জন্য নারী ও শিশুবান্ধব পার্ক নির্মাণ, প্রতিটি ওয়ার্ডে বৃক্ষরোপণ, খেলার মাঠগুলো রক্ষা, নতুন খেলার মাঠ তৈরি করেছেন। সবুজায়নের চিহ্ন বহন করছে শহর, সিদ্ধিরগঞ্জ ও কদমরসূল অঞ্চলে প্রতিটি সড়ক বিভাজক, সড়কের পাশে ও খালি জায়গা। ২০০৩ সালে পৌর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে ২০২১ সালে দ্বিতীয় দফায় সিটি মেয়রের দায়িত্ব পালনকালীন বদলে দিয়েছেন নগরীর চেনা রূপ।

 

সুপরিকল্পিত নগরায়নের এক অনন্য উদাহরণ হিসেবে শহরের বুকে নির্মাণ করেছেন শেখ রাসেল নগর পার্ক, খনন ও সৌন্দর্যবর্ধন করেছেন বাবুরাইল খাল এবং সিদ্ধিরগঞ্জ খাল। বাহারি রঙের ফুলগাছ ও বৃক্ষরাজিতে ঘেরা শেখ রাসেল নগরপার্ক পরিণত হয়েছে বিশুদ্ধ নিঃশ্বাস নেওয়ার উদ্যানে। ব্যস্ত নগরীর বঙ্গবন্ধু সড়কের মাঝামাঝি অবস্থানে নির্মাণ করেছেন বঙ্গবন্ধু চত্ত্বর। কর্মচঞ্চল এই শহরে ক্লান্তি দূর করতে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেওয়ার স্থান পেয়েছেন নগরবাসী। এসব কাজে নানা মহলের প্রতিবন্ধকতা টলাতে পারেনি তাকে। নগরবাসীকে দেওয়া সুন্দর ও বাসযোগ্য নগরী গড়ার লক্ষ্যে সবকিছুর উর্ধ্বে উঠে কাজ করেছেন মেয়র আইভী।

 

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ‘সিটি কর্পোরেশন অনেকগুলো জলাধার, খাল উদ্ধার করেছে। বিভিন্ন খাল উদ্ধার করে সৌন্দর্যবর্ধন করে দিয়েছি। নগরবাসীর সুবিধার্থে সিটির বাইরের খালও দখলমুক্ত করতে কাজ করেছি। অনেকগুলো খাল ও পুকুরের কাজ এখনও চলমান রয়েছে। লক্ষাধিক গাছ আমরা নগরীর বিভিন্ন স্থানে লাগিয়েছি। অধিকাংশ গাছই টিকেছে। সেগুলোর পরিচর্যারও ব্যবস্থা করেছি। আমি নগরবাসীকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, নগরীতে সবুজায়ন করার। খাল উদ্ধার, মাঠ, পুকুর রক্ষা ও বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণের মধ্য দিয়ে সে প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পেরেছি বলেই মনে করি।

 

এই বিভাগের আরো খবর