মঙ্গলবার   ০৪ অক্টোবর ২০২২   আশ্বিন ১৯ ১৪২৯

নদী দূষণকারী চার প্রতিষ্ঠানের গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

যুগের চিন্তা রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২  

 

শীতলক্ষ্যা নদী দূষণকারী চার প্রতিষ্ঠানের গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। গতকাল বুধবার পরিবেশ অধিদপ্তর সদর দপ্তরের বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজীদ আহমেদ এর নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ, ডিপিডিসি এর বিদ্যুৎ বিছিন্নকারী টীম, তিতাস গ্যাসের সংযোগ বিচ্ছিন্নকারী টীম,

 

 

 

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রতিনিধি এবং পরিবেশ অধিদপ্তর, নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের কর্মকর্তা সমম্বয়ে একটি টীম নদী দূষণকারী চার কারখানার গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো, সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল এলাকার ইব্রাহিম কম্পোজিট টেক্সটাইল মিলস,

 

 

 

গোদনাইল, ফতুল্লার হাজীগঞ্জ (মূল বাঁশের মোড়) এলাকার ওয়েস্ট নীট ওয়্যার লিঃ (ক্লথ আপ নীটওয়্যার), সিদ্ধিরগঞ্জের সাইলো রোড এলাকার রান্স এ্যাপারেলস লিমিটেড, সাইলো রোড এবং জালকুঁড়ি (পশ্চিম পাড়া) এলাকার শাকিল নীটেক্স লি.।

 

 



পরিবেশ অধিদপ্তর নারায়ণগঞ্জ কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মুহাম্মদ আল মামুন জানান, কারখানাসমূহ দীর্ঘদিন যাবৎ পরিবেশগত ছাড়পত্র গ্রহণ ব্যতিত এবং দূূষণ নিয়ন্ত্রণে তরল বর্জ্য পরিশোধনাগার বা ইটিপি স্থাপন ব্যতিত কারখানার উৎপাদন কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছিল।

 

 

 

ইতোপূর্বে কারখানাসমূহকে পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং এন্ড এনফোর্সমেন্ট শাখা হতে ক্ষতিপূরণ ধার্য ও আরোপ এবং ইটিপি স্থাপনের নির্দেশনা প্রদান করা হলেও উক্ত নির্দেশনা না মেনে কারখানা কর্তৃপক্ষ অব্যাহতভাবে পরিবেশ দূষণ করছিল।

 

 

 

বিভিন্ন দূষণকারী কারখানার অব্যাহত দূষণ স্থায়ীভাবে বন্ধ করার অংশ হিসেবে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। কারখানাটির সেবা সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার জন্য পরিবেশ অধিদপ্তর, নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয় হতে প্রস্তাব প্রেরণ করা হলে মহাপরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর,

 

 

 

সদর দপ্তর মহোদয় কারখানার সেবা সংযোগ বিচ্ছিন্নের প্রস্তাব অনুমোদন প্রদান করেন। নারায়ণগঞ্জে দূষণকারী সকল কারখানার বিরুদ্ধে পরিবেশ অধিদপ্তরের এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এই বিভাগের আরো খবর