সোমবার   ১৪ জুন ২০২১   জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪২৮

নরপতির দুই আস্তানা !

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২১  

দুই হাতের দশটি আঙ্গুলে ২৫টিরও বেশি আংটি তার। হাতে রয়েছে উদ্ভট বেশ কিছু ব্রেসলেট। নারায়ণগঞ্জ শহরের আশপাশে আগে তেমন একটা তাকে দেখা না গেলেও সম্প্রতি তিনি তাঁর অবস্থান জানান দিচ্ছেন। জেলার প্রভাবশালী পরিবারের একজন সদস্যের ওকিল মেয়ের পরিচয়ে তিনি শহরজুড়ে সাটিয়েছেন বেশ কিছু ফেস্টুন। আর এই ব্যাক্তিটির নাম হলো মুরাদ হোসেন বারিস। তাঁর বাবা জহিরুল ইসলাম চিত্তরঞ্জন ইউনিয়নে অনেক বছর আগে নির্বাচন করেছিলেন।

 

তবে নির্বাচনে জয়ী না হলেও মুরাদ নিজেকে চেয়ারম্যানের ছেলে হিসেবে পরিচয় দিতে পছন্দ করেন। বর্তমানে ওসমান পরিবারের একজন সদস্যের ওকিল মেয়ের জামাই হওয়ার পরিচয়ে তিনি এখন ঐ পরিবারের উত্তরসূরী হিসেবেও নিজেদের অধিনস্তদের সামনে পরিচয় দিতেও দি¦ধা করেন না। মুরাদ সম্প্রতি খানপুর হাসপাতাল সামনে ও পপুলার ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারের পিছনে গড়ে তুলেছেন খুপড়ি ঘর। আর এই দুই খুপড়ি ঘরে প্রতি রাতে চলে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা যুবকদের আড্ডাবাজী।


মুরাদ হোসেন বারিস। কয়েক বছর আগে দেওভোগ এলাকায় বিয়ে করেন তিনি। সেই সময় ওসমান পরিবারের একজন সদস্যকে ওকিল শ্বশুর বানান মুরাদ। ডার্ক সাইটে থাকা তিনি এখন নিজেকে জাহির করতে শহরের বিভিন্ন স্থানে সাটিয়ে যাচ্ছেন নিজের ছবি সম্বলিত ফেস্টুন। এই ফেস্টুন দিয়ে তিনি নিজেকে কি জাহির করতে চাচ্ছেন তা নিয়ে সর্ব মহলে শুরু হয়েছে নানা রকম গুঞ্জন। গভীর রাতে পুরো শহরে সাইরেন বাজিয়ে ২/৪টি ট্যাক্সি এবং ১৫/২০ টি মোটর সাইকেল পুরো শহর দাবড়িয়ে বেড়ায়। শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে দাঁড়িয়ে তিনি তার ভক্ত বৃন্দদের সাথে সেল্ফী তুলতে ব্যস্ত থাকতেও দেখা যায়। সারারাত শহরের আশপাশের  এলাকায় এই মহড়া জনমনে নানা প্রশ্ন জন্ম দিচ্ছে। 


শহরের বালুর মাঠ এলাকার এক ব্যাক্তি নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, গত ১/২ মাস আগে মুরাদ ও তার লোকজন সড়কের পাশে জায়গায় ত্রিপল টাঙ্গিয়ে আড্ডাবাজী শুরু করে। রাত যতোই বাড়তে থাকে ততোই অপরিচিত যুবকদের আনাগোনা বাড়তে থাকে এই স্থানটিতে। সাইরেন বাজিয়ে স্থান ত্যাগ করে আবার সাইরেন বাজিয়ে একই স্থানে ফিরে আসে মোটর সাইকেলের বহর। প্রতিদিন রাত থেকে ভোর পর্যন্ত এমন পরিস্থিতি চলতে থাকে। মুরাদের কাছে থাকা একজন জানান, ভাইজান (মুরাদ) ওসমান পরিবারের একজন উত্তরসূরী।  বেশ কিছু এলাকা এখন ভাইজানের (মুরাদের)দায়িত্বে।

 
অপরদিকে গতকাল দৈনিক যুগের চিন্তা পত্রিকায় মুরাদ হোসেন বারিসের বিরুদ্ধে ‘রাতের শহরে নয়া নরপতি’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর পুরো জেলা জুড়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। গোয়েন্দারা ইতিমধ্যে মুরাদের বিরুদ্ধে খোঁজ খবর নিচ্ছেন বলেও একটি সূত্র নিশ্চিত করেছেন। হঠাৎ করে মহড়ার পিছনে কি কারণ থাকতে পারে এ নিয়েই গোয়েন্দারা কাজ করছেন বলেও দাবী সূত্রের। 


এব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো.শাহজামান দৈনিক যুগের চিন্তাকে বলেন, রাতের বেলা শহরে মহড়া দেয় বলে আমার জানা নেই। যদি এমন হয়ে থাকে তাহলে তা আইন বহির্ভূত। তবে কেউ হয়তো শোভা যাত্রা করে থাকতে পারে। গভীর রাতে সাইরেন বাজিয়ে শোভা যাত্রা আইন সিদ্ধ কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি প্রসঙ্গ ঘুরিয়ে বলেন, রাতের বেলা কোনো ভালো মানুষ শোভা মহড়া দেন না। যদি অভিযোগ পাই তাহলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।  
 

এই বিভাগের আরো খবর