শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১   আশ্বিন ২ ১৪২৮

নারায়ণগঞ্জবাসীর পাশে বামপন্থীরা

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১  

মহামারী করোনার শুরু থেকেই সাধারণ শ্রমজীবী মানুষের রুটি রুজি ও খাদ্য সুরক্ষায় নারায়ণগঞ্জবাসীর পাশে ছিল বামপন্থী রাজনৈতিক সংগঠনগুলো। সংকট মোকাবেলায় খাদ্য ও অর্থ সহায়তা, মাস্ক-হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবরাহ, অক্সিজেন সরবরাহ, বিনামূল্যে টিকা রেজিস্ট্রেশন সেবাসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে কাজ করেছে নারায়ণগঞ্জের বাম গণতান্ত্রিক জোটের শরিক দলগুলো।

 

জোটের অন্যতম প্রধান শরিক বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা করোনার শুরু থেকেই মাস্ক, নিজেদের বানানো স্যানিটাইজার, অক্সিজেন সরবরাহ, নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের মাঝে খাদ্য সহায়তা কার্যক্রম শুরু করে। যা এখনো অব্যাহত আছে। সিপিবি জেলা শাখার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম জানান, করোনার শুরু থেকে অর্থাৎ গত বছরের মার্চ থেকে আমরা মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করেছি। আমাদের বানানো স্যানিটাইজার আমরা জেলা প্রশাসক, নারায়ণগঞ্জ করোনা হাসপাতাল, বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করেছি।

 

পাশাপাশি ছিন্নমূল মানুষের পাশে খাদ্য সহায়তা দিয়ে তাদের পাশে থেকেছি। শুধু নারায়ণগঞ্জ শহরে নয় আড়াইহাজার, রূপগঞ্জ, বন্দরেও আমরা আমাদের এই কাজগুলো করেছি। করোনায় যেসকল দুস্থ মানুষের অক্সিজেনের দরকার পড়েছে তাদেরকে আমরা অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে সহযোগিতা করেছি। বাম জোটের আরেক প্রধান শরিক বাসদ করোনার শুরু থেকে দুর্গত মানুষের জন্য ত্রাণ ও খাদ্য বিতরণ, চিকিৎসাসেবা, অক্সিজেন সরবরাহ ও টিকা রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম এবং গরিব শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন এগিয়ে নিতে ‘অদম্য পাঠশালা’ চালুসহ নানা ধরনের কার্যক্রম নিয়ে মানুষের পাশে রয়েছে।

 

নারায়ণগঞ্জের ২নং রেলগেইট, ফতুল্লার গাবতলী, রসুলপুরে কমিউনিটি কিচেনের মাধ্যমে কর্মহীন শ্রমজীবী মানুষের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে বাসদ জেলা শাখার সমন্বয়ক নিখিল দাস জানান, করোনাকালীন সময়ে যেসকল শিশু-কিশোররা অনলাইনে ক্লাস করতে পারে নাই তাদের জন্য আমরা শুরু করেছিলাম অদম্য পাঠশালা। করোনার শুরু থেকে আমরা কমিউনিটি কিচেনের মাধ্যমে ছিন্নমূল মানুষের জন্য এক বেলা খাবারের ব্যবস্থা করেছি। গত ১৩ এপ্রিল আমরা ২৫টি অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে অক্সিজেন সরবরাহের কাজ শুরু করেছি যা এখনও চলমান।

 

এদিকে করোনাকালীন সময়ে জনসাধারণের মাঝে করোনা নিয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করেছে ওয়ার্কার্স পার্টির মৈত্রী ব্রিগেড। করোনায় সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে লিফলেট বিতরণ ও পথসভা করেছে ওয়ার্কার্স পার্টি। পাশাপাশি হাজীগঞ্জ, চৌধুরীবাড়ি, বন্দরে অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে বলে জানান জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক হিমাংশু সাহা।

 


এদিকে গত বছরেই করোনার শুরুতে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ, সড়কে জীবাণুনাশক স্প্রে, ১৫০ অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে অর্থ সহায়তা, ছিন্নমূলদের মাঝে খাবার বিতরণ, করোনা প্রতিরোধক সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণসহ বিভিন্ন কাজ করেছে গণসংহতি আন্দোলন। পাশাপাশি গত বছরের ১ এপ্রিল করোনা পরিস্থিতিতে কোয়ারেন্টাইন কিংবা লকডাউন থাকা অবস্থায় নারায়ণঞ্জবাসীর জন্য ‘ইমারজেন্সি’ নামে একটি সেবা চালু করে গণসংহতি। লকডাউনে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য, কাঁচাবাজার, ওষুধ কেনার জন্য বাইরে যেতে হয়নি লকডাউনে থাকা নারায়ণঞ্জবাসীর। এই সেবার মাধ্যমেই সেবাগ্রহীতাদের বাড়িতে পৌছে দেয়া হয়েছিলো কাঙ্খিত সামগ্রী।
 

এই বিভাগের আরো খবর