বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১   আষাঢ় ১১ ১৪২৮

নাসিক’কে নতুন আঙ্গিকে সাজাতে চান মেয়র প্রার্থী বাবু

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৩ জুন ২০২১  

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনকে ঢেলে সাজাতে আগামী নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছেন কামরুল ইসলাম বাবু। বুধবার (২ জুন) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি। পাশাপাশি দেশের ক্ষমতাশীন দল আওয়ামী লীগ থেকেও তিনি মনোনয়ন প্রার্থী বলে জানা যায়। 


নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনকে একটু ব্যতিক্রমভাবে সাজানোর কথা উল্লেখ করে বাবু বলেন, আমি নির্বাচিত হলে উন্নয়ন, নাগরিক সেবা ও রাজস্ব আদায় এই তিনটি নীতির উপর ভর করে বদলে দিতে পারি নারায়ণগঞ্জকে। পাশাপাশি সবুজ নারায়ণগঞ্জ বিনির্মাণ, প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে পাঠাগার ব্যবস্থা, মন ও মননের সাংস্কৃতিক বিকাশ নিয়েও কাজ করবো। আমার প্রিয় দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনকে ঢেলে সাজাতে আওয়ামী লীগের প্রতীক প্রত্যাশা করবো কিংবা প্রতীক না পেলেও ট্রেন মিস করবো না। নাসিক ট্রেনের চালক হতে এই মুহুর্ত থেকে আমি প্রস্তুত।

 

কামরুল ইসলাম বাবু বলেন, আমাদের মায়ের নাম শেখ হাসিনা, আমাদের নেত্রীর নাম শেখ হাসিনা। গর্ব করে বলা যাচ্ছে যে, সাংস্কৃতিক মনবোধের জায়গায় পঞ্চাশ বছরের বাংলাদেশের অর্জনে দুইটি উজ্জল নক্ষত্রই কেবল বাংলার আকাশে প্রতিভাত। একজন বঙ্গবন্ধু, অন্যজন শেখ হাসিনা। এই দুইটি মানুষের জন্য তাই যখন তখন রাস্তায় নামা যায় এবং যখন তখন আকাশে ডানা মেলে উড়ে সুর ধরা যায়। তোমরা যতই আমাকে মৌসুমী পাখী বল না কেন ? আজ থেকে এই ডানা দ্বয় আর ক্লান্ত হবে না, উড়তেই থাকবে ঐ নীল আকাশে।

 

এই শহরে অনেকের কাছে আমি আদুরে বাবু। কেউ যদি আজ প্রথম আমার নাম শুনে থাকেন তাহলে জানিয়ে দিন এই জনপদকে এখন থেকে আমার নাম শুনতেই থাকবেন। কারণ, আমি জনগণের সেবা করতে চাই। বুদ্ধিবৃত্তিক রাজনীতি ও নৈতিক শিক্ষায় ভর করে আমি আজ থেকে এই নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে নেমে পড়লাম। আমি নিজেকে নিয়ে গর্ব করে বলতে পারি এই ৪৭ বছরের জীবনে এই শহরে থেকে আমার বিরুদ্ধে কোন মামলা নেই। নেই কোন মাদক গ্রহনের অভিযোগ। কখনো অবৈধ পথে কোন উপার্জন করিনি। বিত্ত বৈভবের মালিক হয়ে বুর্জুয়া শ্রেনীর প্রতিনিধিত্বকারী চরিত্রও আমি বাবু নই। 

 

তিনি আরো বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও বর্তমান মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী দুজনই আমার প্রিয় মানুষ। তারা দুজনই আমার অভিভাবক। আমি তাদের প্রতিপক্ষ ছিলাম না ও প্রতিপক্ষ হবও না। তবে আমি শেষ পর্যন্ত নির্বাচন করে যাব। আমি উন্নয়ন, নাগরিক সেবা ও রাজস্ব আদায় এই তিনটি নীতির ওপর ভর করে বদলে দিতে চাই নারায়ণগঞ্জকে। মৌলিক এমন তিনটি নীতির সঙ্গে থাকবে যৌগিক পর্যায়েরও তিনটি নীতি। তা হলো বৃক্ষরোপণ করে এই নারায়ণগঞ্জকে একটি সবুজ শহরে পরিণত করবো। আগামী ৯০ দিনের মধ্যে আমার মূল পরিকল্পনার সাধারণ কিছু তথ্য আপনাদের প্রদান করব আর যদি সুযোগ সৃষ্টি হয়, তাহলে ইনশাআল্লাহ বদলে দেব এই নারায়ণগঞ্জকে।

এই বিভাগের আরো খবর