বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১   আষাঢ় ১১ ১৪২৮

বন্দরেও ৩০১ কোটি টাকা ব্যয়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্প

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২১  

এবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বন্দর অংশের জন্য কঠিন বর্জ্য ব্যাবস্থাপনায় ৩০১ কোটি ৩৫ লক্ষ ২১ হাজার টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এরই মাঝে প্রকল্পটি একনেকে পাশ হয়েছে। প্ল্যান্ট স্থাপনের জায়গা নির্ধার করা হয়েছে। সিটি করপোরেশন সূত্র জানিয়েছে সিটি করপোরেশনের ২৫নং ওয়ার্ডের ধামঘর লক্ষণখোলা এলাকায় প্রায় ৭০ একর জমি অধিগ্রহনের জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডাক্তার সেলিনা হায়াৎ আইভীর অনুরোধে বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্পটি পাশ করেছেন এবং অর্থ বরাদ্দ দিচ্ছেন।

 

এ লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন গত বছরের ২১ জুলাই নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কদম রসুল অঞ্চলের কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য ভূমি অধিগ্রহণ ও উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব (ডিপিপি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদনের জন্য প্রেরন করেন। গত বছরের ১০ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে একনেক সভায় শতভাগ সরকারী ব্যয়ে বাস্তবায়নের জন্য প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়।

 

এ কারনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি নগরবাসীর প্রক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন। এদিকে সিটি করপোরেশন সূত্র জানিয়েছে, উক্ত প্রকল্পের মেয়াদকাল ২০২৩ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত। প্রকল্পের কাজের মাঝে জমি অধিগ্রহণ, বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণ, কার ওয়াশিং সেড নির্মাণ, রাস্তা নির্মাণ, ভূমি উন্নয়ন, প্রকৌশল সরঞ্জাম ক্রয়সহ আরো বহু নির্মাণ সামগ্রী ক্রয় করা হবে।

 


সূত্র আরো জানিয়েছে, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে বন্দর হবে আরো পরিচ্ছন্ন নগরী। প্রকল্পের জমি অধিগ্রহণের মাধ্যমে স্যানিটারী ল্যান্ডফিল নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে সম্পদের সু-ব্যবহার, সহজ ও কার্যকর ভাবে কঠিন বর্জ্য সংগ্রহ এবং প্রক্রিয়াকরণ, দূষণ কমিয়ে পরিবেশের উন্নয়ন, নগরীর স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিৎকরন সহ আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নতি ঘটবে। এছাড়া কদম রসুল অঞ্চল সহ নগরীর স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত হবে। 

 


প্রসঙ্গত, এবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র হওয়ার পর থেকে আইভী প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় গোটা সিটি করপোরেশন এলাকায় একের পর এক মেঘা প্রকল্পের কাজ হাতে নিয়েছেন এবং এগুলো বাস্তবায়ন করে চলেছেন। এসব প্রকল্পের মাঝে রয়েছে বাবুরাইল খাল প্রকল্প, সিদ্ধিরগঞ্জ খালের নির্মাণ, জল্লারপাড়া লেক নির্মাণ, নগর ভবন নির্মাণ, জালকুড়িতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্ল্যান্ট নির্মাণ সহ আরো অনেক মেঘা প্রকল্পের কাজ চলছে। এসব প্রকল্পের কাজ অধিকাংশই এখন শেষ পর্যায়ের রয়েছে। ফলে এসব প্রকল্পের কাজ শেষ হলে এই নগরীর মানুষদের নাগরিক সুবিধা আরো অনেক খানি বেড়ে যাবে। এরই মাঝে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন এলাকা একটি আদর্শ এলাকা হিসাবে গড়ে উঠেছে। 
 

এই বিভাগের আরো খবর