বুধবার   ০৪ অক্টোবর ২০২৩   আশ্বিন ১৯ ১৪৩০

বিশ্ব পরিবেশ দিবসে ৩০ টাকায় গাছের মেলা

নুরুন নাহার নিরু

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২৩  


সোমবার (৫ই জুন) বিশ্ব পরিবেশ দিবস; সারাদেশে বিভিন্ন সংগঠন থেকে নানা আয়োজনে পালিত হচ্ছে এ দিবসটি। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে দ্বিতীয় বারের মতো নারায়ণগঞ্জের দেওভোগ শেখ রাসেল পার্কে ৩ দিন ব্যাপী ৩০ টাকায় বিভিন্ন প্রজাতির গাছের মেলার আয়োজন করেছে গ্রীন লাইফ সোসাইটি নামক সংগঠনটি। মূলত এই সংগঠনটির মূল উদ্দেশ্য সাধারন মানুষ কিংবা ছাত্র-ছাত্রীদের মনে বাগান করার উৎসাহ তৈরি করা। 

 

 

এ বিষয়ে গ্রীন লাইফ সোসাইটির সভাপতি সান্তা আক্তার অর্নিতা যুগের চিন্তাকে জানান, ছোট বেলায় বইতে পড়েছি বাংলাদেশে প্রায় ১৪ ভাগ গাছ রয়েছে এমনকি এই দেশটি সবুজ-শ্যামলের দেশ কিন্তু বর্তমানে দেখছি প্রায় ৯-১০ ভাগ গাছ রয়েছে। এভাবে যদি গাছের সংখ্যা কমতে থাকে তাহলে একটা সময় আমাদের দেশে অক্সিজেনের পরিমান কমে যাবে ও তীব্র গরম থাকবে।

 

 

এছাড়া বিশেষ করে আমাদের এই উদ্যোগ গ্রহন করার কারন হলো বাগানীদের জন্য। অনেক ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে যারা বাগান করা শখ। কিন্তু নার্সারিতে একটা গাছের দাম প্রায় তাদের কাছে অনেক কেননা তারা শিক্ষার্থী এতো এতো টাকা দিয়ে গাছ কিনা তো তাদের পক্ষে সম্ভব না।

 

 

এছাড়া বর্তমানে মাঠের সংখ্যা কিংবা গাছ লাগানোর মতো জায়গা কমে গেছে এ জন্য আমাদের চাওয়া শিক্ষার্থীরা যেনো তাদের বাড়ির ছাদে বা বারান্দাতে অল্প টাকা দিয়ে গাছ কিনে বাগান তৈরি করতে পারে এবং ভবিষতে গাছ লাগাতে উৎসাহ পায়। শনি-আকরার একটি নাসার্রি থেকে আমরা ২৫ টাকা দিয়ে মাঝারি সাইজের গাছ ক্রয় করি আর বিক্রি করি ৩০ টাকা দরে।

 

 

বিক্রয়ের পর যে টাকা টা থাকে সেই টাকাটা আমরা আবার দুভাগে ভাগ করি। কেননা আমাদের আরো দুটো প্রকল্প রয়েছে ঈদ-উল-ফিতর এবং ঈদ-উল-আযহাতে। ঈদ-উল-ফিতরে আমরা পুরো রমজান মাসে অসহায় ব্যাক্তিদের বাজার দিয়ে থাকি এবং ঈদ-উল-আযহাতে একটা গরু কিনে সেটা গরীবদের মাঝে বিতরণ করি।

 

 

এছাড়া ঈদের দিনে অসহায় ব্যাক্তিদের এক বেলা খাওয়ানো চেষ্টা করে থাকি। অন্যদিকে আমাদের সংগঠনে প্রায় ৫০জন বলেন্টিয়ার রয়েছে। তারা সমাজসেবার উদ্দেশ্যে কোনো লাভ ছাড়াই এগিয়ে এসেছে। তবে আমরা তাদেরকে আমাদের সংগঠনের একটি সনদপত্র প্রদান করে থাকি। 

 

 

এ বিষয়ে গাছ কিনতে আসা সোহাগ নামে এক ক্রেতা বলেন, তোলারাম কলেজে একাদশ শ্রেনিতে পড়ি। ছোট-খাটো একটা বাগান করার শখ রয়েছে যে কারনে বাড়ির ছাদে এবং বারান্দাতে গাছ লাগিয়েছি। কিন্তু আমরা তো ছাত্র এতো টাকা দিয়ে নার্সারি থেকে গাছ কেনা অনেক সময় সম্ভব হয়ে উঠে না এ কারনে যখনই শুনেছি ৩০ টাকায় গাছ বিক্রি হচ্ছে ছুটে এসেছি গাছ কিনার জন্য। 

 

 

একই বিষয়ে হাসনা নামে একজন গৃহিনী বলেন, ছোট বেলা থেকে বিভিন্ন ফুল-ফল বা সবজির গাছ লাগানো শখ তাই তখন থেকেই দু-একটা গাছ লাগাতাম। এখনো বাড়ির ছাদে বিভিন্ন রকমের গাছের ছোট একটা বাগান আছে। বর্তমানে নার্সারিতে একটা ছোট গাছ কিনতে গেলেও ১০০ থেকে ১৫০ টাকার প্রয়োজন।

 

 

মানুষ এখন খেতে পায় না সব সবজির দাম এখন ৬০ টাকার উপরে তাই সংসারের খরচ চালিয়ে এতো টাকা দিয়ে গাছ কিনা সম্ভব হয় না। এ কারনে ৩০ টাকায় গাছের মেলাতে এসেছি কিছু গাছ কিনে নিয়ে যাওয়ার জন্য।  এন. হুসেইন রনী  /জেসি

এই বিভাগের আরো খবর