মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১   কার্তিক ৩ ১৪২৮

‘মেয়ে মার্কা লোককে নির্বাচিত করলে উন্নয়নও মেয়ে মার্কা হবে’

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০২১  

কাশিপুর ইউনিয়নের নির্বাচনী আলোচনা সভায় মামুন নামের এক ব্যক্তি বলেন, সাইফ উল্লাহ বাদল শুধু কাশিপুরের চেয়ারম্যান নয় তিনি পুরো নারায়ণগঞ্জের নেতা। আমরা কাশিপুরে কোন নির্বাচন চাই না। তাকে আমরা আবারও বিনা প্রতিদন্ধিতা চেয়ারম্যান চাই। ৫ বছর পরে এসে তাকে আবার ভোট চাইতে হবে কেন। আমরা তাকে বিনা ভোটে চেয়ারম্যান বানাবো।


এ সময় আরেক বক্তা বলেন, যারা বাদল ভাইয়ের বিরুদ্ধে গিয়ে চেয়ারম্যান হতে চায় তারা চরম বেয়াদবি করছে। আমরা যদি মেয়ে মার্কা লোককে নির্বাচিত করি, তাহলে উন্নয়নও হবে মেয়ে মার্কা। আর যদি কাজ করার মত লোককে নির্বাচিত করি তাহলে উন্নয়ন মূলক কাজ হবে।

 

কাশিপুর ইউনিয়নের নির্বাচন উপলক্ষে শুক্রবার বিকেলে হোসাইনি নগর পঞ্চায়েত কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত নাগরিক সমাবেশে তারা এধরণের কথা বলেন।


এদিকে কাশিপুরবাসি তাদের এ ধরণের বক্তব্য নিয়ে সমালোচনা করে বলেন, তারা আসলে নির্বাচন করতে আসে নাই। তাদের বিপক্ষের প্রার্থীদের হুমকি স্বরুপ কথা বলতে এসেছে। বাদল চেয়ারম্যানের বিপক্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়া মানে বেয়াদবি করা এই ধরনের কথা নির্বাচনে মানায় না। কেননা নির্বাচনের অধিকার ২৫ বছেরর উর্ধের সকল বয়সীরই আছে। নির্বাচনের মাঠে যারা প্রার্থী, তারা ভোটের মাধ্যমে নিধার্রণ করবে কে জনগনের ভোটে জয়ী হবে।

 

অথচ তারা আগেই বলে ভোটে মাধ্যমে চেয়ারম্যান চান না। বিনা ভোটে সাইফ উল্লাহ বাদলকে চেয়ারম্যান হিসেবে চান। তাই সচেতন মহল থেকে প্রশ্ন উঠেছে, তাদের কিসের এত ভয়, যে কারনে বিনা ভোটে চেয়ারম্যান হতে চান। মানুষকে ভোট প্রদানের সুযোগ দিতে হবে।


অন্যদিক আরেক প্রার্থী মোমেন সিকদার বলেন, সাইফ উল্লাহ বাদলের জনপ্রিয়তা কম। তাই তিনি মানুষের অধিকার ধ্বংস করে বিনা ভোটের চেয়ারম্যান হতে চান। তিনি ভোটের মাঠে যুদ্ধ করুক, দেখা যাবে তার কতটুকু জনপ্রিয়তা আছে।


সাইফ উল্লাহ বাদল বলেন, আমি এবার নির্বাচনের মাধ্যমে মানুষের ভোটে চেয়ারম্যান হতে চাই। সেই সাথে কাশিপুরে এবার নির্বাচন চাই। দেখতে চাই মানুষ আমাকে ভোট দেয় কি না।  মানুষের ভোটের আমি জয়ী হবো।
 

এই বিভাগের আরো খবর