শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১   আশ্বিন ২ ১৪২৮

রূপগঞ্জের সেজান জুস কারখানায় আরো হাড়-কঙ্কাল

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৯ সেপ্টেম্বর ২০২১  

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের হাসেম ফুডের সেই কারখানায় তল্লাশি চালিয়ে মানুষের শরীরের আরও কিছু পোড়া হাড়, কঙ্কাল ও মাথার খুলি উদ্ধার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) তল্লাশি চালিয়ে ভবনের চতুর্থ তলা থেকে এসব উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হাড়-কঙ্কালের ডিএনএ পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিআইডির পরিদর্শক আতাউর রহমান বলেন, গত ৮ জুলাই ওই কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে লাবুনি, সাজ্জাত ও মহিউদ্দিন নামে আরও তিন শ্রমিক নিখোঁজের আবেদন পেয়ে সিআইডি তল্লাশি শুরু করে। বৃহস্পতিবার তল্লাশি চালিয়ে ভবনের চারতলায় মানুষের শরীরের বিভিন্ন অংশের বেশ কিছু হাড়-কঙ্কাল পাওয়া গেছে। মাথার খুলির কিছু অংশও পাওয়া গেছে। এর আগে ঘটনার দুই মাস পর গত ৭ সেপ্টেম্বর পৃথক চারটি স্থানে আরও কিছু দেহাবশেষ পাওয়া যায়। এগুলো পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

 

গত ৮ জুলাই বিকেলে রূপগঞ্জ উপজেলার কর্ণগোপ এলাকায় সজীব গ্রæপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান হাসেম ফুডস লিমিটেড কারখানার ছয়তলার একটি ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। সরকারি হিসেবে, এতে প্রাণ হারান কারখানার ৫১ জন শ্রমিক-কর্মচারী। যদিও নাগরিক সমাজের তদন্ত কমিটির দাবি, ৫৪ জনের প্রাণ গেছে এই ঘটনায়। ঘটনার পরদিন রাতে এই ঘটনায় রূপগঞ্জের ভুলতা ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক নাজিম উদ্দিন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

 

রূপগঞ্জ থানা দায়ের করা ওই মামলার এজাহারনামী আসামি সজীব গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ হাসেম, তার চার ছেলে ও তিন কর্মকর্তাকে গ্রেফতারও করা হয়। মামলাটি তদন্ত করছে সিআইডি। জেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটি অগ্নিকান্ডের হতাহতের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট সরকারি সংস্থা ও কারখানা কর্তৃপক্ষের গাফিলতির প্রমাণ পেয়েছে বলে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে।
 

এই বিভাগের আরো খবর