বুধবার   ১৯ মে ২০২১   জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৮

র‌্যাবের অভিযানে ১১ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার-২

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০২১  

নারায়ণগঞ্জের বন্দর থেকে চালক ও যাত্রীর ছদ্মবেশে প্রাইভেট কারযোগে অভিনব কায়দায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য গাঁজা পরিবহনকালে ১১ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব ১১’র একটি আভিযানিক দল।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) ভোর সোয়া ৫টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক বিরোধী অভিযানে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বন্দরের কেওঢালা এলাকায় চেকপোষ্ট বসিয়ে একটি প্রাইভেটকার তল্লাশীকালে ওই গাঁজাসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এ সময় তাদের কাছ থেকে মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ১টি প্রাইভেট কার, ২টি মোবাইল ও নগদ ২ হাজার ৫শ’ টাকা জব্দ করা হয়।
গ্রেফতারকৃতরা হলো, লক্ষীপুর জেলার সদর থানার রাধাপুর এলাকার মো: আলমগীর ও কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ থানার সুয়াগাজী বাটপাড়া এলাকার মো: রাশেদ।

একই দিন দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরে অবস্থিত র‌্যাব ১১’র সদর দপ্তর থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, গ্রেফতারকৃতরা আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য পরষ্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন ধরে চালক ও যাত্রীর ছদ্মবেশে যাত্রীবাহী প্রাইভেট কারযোগে অভিনব কায়দায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য গাঁজা পরিবহন করে আসছিল।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১, সিপিএসসি’র একটি আভিযানিক দল নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানার কেওঢালা এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চেকপোষ্টের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করে সাড়ে ১১ কেজি গাঁজাসহ ওই মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে।


প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করে, অবৈধভাবে দীর্ঘদিন যাবৎ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রাইভেট কারযোগে যাত্রী পরিহনের আড়ালে চালক ও যাত্রীর সীটের নিচে বিশেষ কৌশলে নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য গাঁজা পরিবহন করে নিয়ে এসে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল। মাদক ব্যবসা তাদের একমাত্র পেশা। চালক ও যাত্রী হিসেবে পরিচয় তাদের ছদ্মবেশ মাত্র। 
তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও র‌্যাব নিশ্চিত করেছে। 

এই বিভাগের আরো খবর