শুক্রবার   ২১ জানুয়ারি ২০২২   মাঘ ৮ ১৪২৮

শহর-বন্দরে সাত দৃষ্টিনন্দন মসজিদ

শুভ্র কুমুদ

প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি ২০২২  

# মাসদাইর কেন্দ্রীয় কবরস্থান এবং মসজিদে দৃষ্টিনন্দন উন্নয়ন
# সাম্প্রদায়িক উস্কানি দিয়েও অশুভ শক্তি সফল হতে পারেনি



সিটি নির্বাচন আসলেই একটি মহল অত্যন্ত সচেতনভাবে সাম্প্রদায়িক উস্কানী দিয়ে শহর উত্তপ্ত করার প্রচেষ্টা চালায়। এবারের সিটি নির্বাচনের আগেও বছরের শুরুতে বাগে জান্নাত মসজিদ ও মাসদাইর মসজিদ ভেঙে ফেলা হচ্ছে এমন অভিযোগ তুলে ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর বিরুদ্ধে হেফাজতের তথাকথিত ওলামা পরিষদের নেতারা মাঠ গরম করার চেষ্টা করেন।  প্রায় একই সময়ে মণ্ডলপাড়ায় নারায়ণগঞ্জ জেলা মডেল মসজিদ নিয়েও আপত্তি তোলে একটি মহল। সেখানেও অভিযোগ তোলা হয় আইভীর বিরুদ্ধে। কিন্তু স্বল্প সময়ের ভেতরেই শহরের ধর্মপ্রাণ মুসলমান ও শান্তিপ্রিয় নারায়ণগঞ্জবাসী বুঝতে পারে নাসিক নির্বাচন ঘিরে আইভীকে বেকায়দায় ফেলতে একটি চক্র এই ষড়যন্ত্র করেছে। 

 

এরপরেও আবার নানাভাবে উস্কানী দিতে শুরু করে হেফাজত নেতা মাওলানা ফেরদৌসুর রহমান, বর্তমান ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী মুফতি মাসুম বিল্লাহসহ আরো বেশ কয়েকজন বিতর্কিত নেতা। কিন্তু সেসব হালে পানি পায়নি। থলের বিড়াল ঠিকই বেরিয়ে এসেছে। এই মসজিদ ভাঙার মিথ্যা অভিযোগ তুলে আইভীকে শীতলক্ষ্যায় ভাসিয়ে দেয়ার হুঙ্কার দিয়েছিলেন তারা। কিন্তু তাদের ষড়যন্ত্রের কথা ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর হেফাজত নেতারা সংবাদ সম্মেলন করে ক্ষমা চেয়েছেন। হেফাজতের তাণ্ডবের সময়ও এসব বিতর্কিত নেতারা নানাভাবে উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করেছিল। তবে আইভী যে সব ধর্মের মানুষের জন্য ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে গত ১৮ বছর ধরে এই শহরের উন্নয়ন করেছেন তা ক্রমশই আবারো পরিষ্কার হয় নগরবাসীর কাছে। আইভীর হাত ধরে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের জন্য বেশ কিছু দৃষ্টিনন্দন মসজিদ তৈরি করা হয়েছে। আরো বেশ কয়েকটি রয়েছে বাস্তবায়নের পথে।  

সূত্র বলছে, ২০১৬ সালে দ্বিতীয় দফায় মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে বেশ কিছু দৃষ্টিনন্দন মসজিদ তৈরি করেছেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এছাড়াও আরো কিছু দৃষ্টিননন্দন মসজিদ তৈরির কাজ চলমান রয়েছে। দৃষ্টিনন্দন মসজিদগুলোর মধ্যে মাসদাইর কেন্দ্রীয় কবরস্থান জামে মসজিদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১২নং ওয়ার্ডে মাওলা আলী (রা.) সিটি জামে মসজিদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৫নং ওয়ার্ডে মা ফাতেমা  (রা.) সিটি জামে মসজিদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৭নং ওয়ার্ডে ইমাম হাসান হুসাইন (রা.) সিটি জামে মসজিদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৩নং ওয়ার্ডে পাক পাঞ্চাতন সিটি জামে মসজিদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৫নং ওয়ার্ডে আহলে বায়াত সিটি জামে মসজিদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৩নং ওয়ার্ডে হাজী জালালউদ্দিন সিটি জামে মসজিদ অন্যতম।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, আইভী যেমন ধর্মমান মুসলমানদের জন্য দৃষ্টিনন্দন মসজিদ তৈরি করে দিয়েছেন। তেমনি, সনাতন ধর্মালম্বীদের জন্য মাসদাইরে মন্দিরে নতুন ভবন তৈরি করে দিয়েছেন। এছাড়া নারায়ণগঞ্জে চার ধর্মের সমাধিস্থল মুসলিম ও খিস্টানদের কবরস্থানের সংস্কার কাজ, হিন্দুদের শ্মশান আর বৌদ্ধদের শেষকৃত্যের জায়গাটিরও নানা সংস্কার কাজ করে উন্নয়ন ঘটিয়েছেন।

নগরবাসী বলছেন, শুধু যে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের এই সিটি নির্বাচনকে ঘিরে আইভীর বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছিল তা নয়। সনাতনধর্মালম্বীদেরও আইভীর বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছিল। দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করে ফেলেছে আইভী ও তার পরিবার এমন অভিযোগ তুলে বেশ কিছু বিতর্কিত হিন্দু নেতারা গতবছর  শহর উত্তপ্ত করার চেষ্টা করেছিল। তাতে সাড়া না পেয়ে সনাতনধর্মালম্বীদের সবচাইতে বড় অনুষ্ঠান দুর্গাপূজার মণ্ডপে মণ্ডপেও কুৎসা রটনা করা হয়েছিল আইভীর বিরুদ্ধে। কিন্তু সনাতন ধর্মালম্বীরা ষড়যন্ত্রকারীদের সেই ফাঁদে পা বাড়ায়নি। নারায়ণগঞ্জ অসাম্প্রদায়িকতার প্রতীক। সব ধর্মের সব বর্ণের মানুষ এই শহরে শান্তিতে বসবাস করেন। দীর্ঘ ১৮ বছর যাবৎ আইভী সেই সুনাম সাফল্যের সাথে অক্ষুন্ন রেখেছেন। সামনেও যাতে অসাম্প্রদায়িকতার এই দেয়াল কেউ ভাঙতে না পারে তারজন্য এবারও আইভীকেই বেঁছে নেবে নগরবাসী মত বিশ্লেষকদের।

এই বিভাগের আরো খবর