সোমবার   ১৪ জুন ২০২১   জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪২৮

শিক্ষাজীবনের বৈষম্য দূর করার লক্ষ্যে মানববন্ধন

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ২৭ মে ২০২১  

শিক্ষার্থীদের  ভ্যাকসিন দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা ও সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের করোনাকালের বেতন-ফি মওকুফ করা এবং শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসের জন্য বিনামূল্যে ডিভাইস ইন্টারনেট সেবা ও করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের জন্য বাজেটে বিশেষ বরাদ্দসহ শিক্ষাখাতে জাতীয় বাজেটের ২৫% বরাদ্দের দাবিতে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

 

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকাল ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সুলতানা আক্তারের সভাপতিত্বে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। 

 

এসময় বক্তারা বলেন, করোনা মহামারির কারণে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা জীবন আজ হুমকির মুখে পড়েছে। বাংলাদেশে করোনা মহামারি আরও বিপর্যয়ের শঙ্কা তৈরি করেছে। এর মধ্যে আমাদের করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা করতে হচ্ছে। তাই আদৌ কবে শিক্ষাজীবন স্বাভাবিক হবে তা নিয়ে চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে দিনযাপন করছে শিক্ষার্থীরা। দেশে সব মিলিয়ে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা প্রায় ৫ কোটি। এর প্রায় অর্ধেক শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবনই আজ বির্পযস্ত ও অনিশ্চিতায়। 

 

অন্যদিকে নেওয়া হচ্ছে অনলাইনে ক্লাস কিন্তু অনলাইন ক্লাস নেওয়ার জন্য যে পরিমান আয়োজন থাকার প্রয়োজন তা নেই। প্রায় ৮৭% ছেলেমেয়েরা অনলাইন ক্লাস থেকে বঞ্চিত। এই সংকট দূরীকরণে আমরা মনেকরি সকল শিক্ষার্র্থীদের হাতে ডিভাইস ও ইন্টারনেট ফ্রি করে দিলে কিছুটা হলেও এই সংকট দূর হবে। এই শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন রক্ষার্থে সরকারের কোন ধরনের আয়োজন নেই। এটা সরকারের দুর্যোগ মোকাবিলায় ব্যর্থতার পরিচয় বহন করে।

 

বক্তারা আরো বলেন, আমরা জানি আগামী ৩ জুন ২১-২২ অর্থ বছরের বাজেট পেশ করতে যাচ্ছে সরকার কিন্তু আমরা চলতি অর্থ বছরে দেখেছি শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাত মিলিয়ে বরাদ্দ করা হয়েছে ১৫.১০ শতাংশ। যেখানে শুধু শিক্ষাখাতে বরাদ্দ হয়েয়ে মাত্র ১১.৬৯ শতাংশ, এটা খুবই অল্প বরাদ্দ। শিক্ষাখাতকে ঢেলে সাজাতে প্রয়োজন জাতীয় বাজেটের ২৫ শতাংশ বরাদ্দ করা। তাই শিক্ষাজীবন বাচাঁতে হলে আসন্ন জাতীয় বাজেটে শিক্ষাখাতে বিশেষ মনযোগ দেওয়া প্রয়োজন। 

 

এসময় মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার অর্থ সম্পাদক মুন্নি সরদার, ফতুল্লা থানার সংগঠক ফয়সাল আহম্মেদ রাতুল ও শহর শাখার সংগঠক সাইফুল ইসলাম প্রমূখ।
                                                                        
 

এই বিভাগের আরো খবর