মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১   কার্তিক ৩ ১৪২৮

শীঘ্রই কোভিড হাসপাতালে সাধারণ রোগের চিকিৎসা শুরু

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১  

১০টি আউসিইউ বেড নিয়ে নারায়ণগঞ্জ কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালটি শুরু করলে এক সময় একটি আইসিইউ বেডের জন্য সিরিয়াল দিতে হতো। আর রোগীর স্বজনরা আশায় থাকতো কখন একটি শয্যা খালি হবে।

 

সক্রমণ কমে যাওয়ায় এখন আর ওই পরিস্থিতি নেই এই হাসপাতালে।  ১০ বেডের আইসিইউ শয্যার মধ্যে ৮ বেডেই রোগী শূন্য। অন্যদিকে সাধারণ শয্যায় তেমন একটা রোগী নেই। একশত দশ শয্যার মধ্যে ৮৬ শয্যা খালি। রোগী না থাকায় করোনা আইসোলেসন ১৯নং পুরুষ ওয়ার্ড ও ১৮নং মহিলা ওয়ার্ড বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। গতকাল কোভিড হাসপাতাল ঘুরে এই তথ্য পাওয়া গেছে।  



এদিকে গত দেড় বৎসরের বেশী হাসপাতালটিতে স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থায় করোনাভাইরাস বিষয়টিকে বিশেষ প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। তাই হাসপাতালটিতে সাধারণ রোগের চিকিৎসা বন্ধ করে দেয়া হয়। তবে বর্তমানে করোনা সক্রামণ অনেকটাই কমে যাওয়ায় সাধারণ রোগের চিকিৎসা শুরু এখন সময়ের ব্যাপার। এরপূর্বেও করোনার সক্রামণ কমে গিয়েছিল তখন এই হাসপাতালটির জরুরী বিভাগ ও ছোট পরিষরে বহির্বিভাগ খুলে দিয়ে ছিল কর্তৃপক্ষ।



ভুক্তভোগী মোশারফ হোসেন জানান, করোনা আক্রান্ত নন কিন্তু অন্য গুরুতর রোগ রয়েছে এমন রোগীরা জরুরী চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আমরা কঠিন এক সময় পার করে চলছি। করোনা ভাইরাসের চেয়ে বেশী অন্যান্য রোগী। এদের কথাও মাথায় রাখতে হবে। মোশারফ আরো জানান, তার বাবা গতকাল অসুস্থ হয়ে পড়ায় এই হাসপাতালে নিয়ে আসেন। কিন্তু তার জানা ছিলোনা এখানে সাধারণ রোগের চিকিৎসা হয় না। তাই ভুক্তভোগী মোশারফ তার দুর্দশার কথা উল্লেখ করে বলেন অসুস্থ বাবাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন।  



এ ব্যাপারে কোভিড হাসপাতালের চিকিৎসা তত্ত্বাবধায়ক আবুল বাসার জানান, করোনা সংক্রমন কমে আসায় রোগীর চাপ কমেছে। আইসিইউসহ সাধারণ শয্যা খালি আছে। তবে সাধারণ রোগের চিকিৎসা সেবা শুরু করার একটা চিন্তা-ভাবনা রয়েছে। সামনে সবাইকে নিয়ে মিটিং করে কি কারা যায় ডিসিশন নেয়া হবে। তবে করোনা’র টিকা দেয়া অব্যাহত থাকবে। পরিস্থিতি বুঝে সব কিছু করা হবে।
 

এই বিভাগের আরো খবর