বুধবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   ফাল্গুন ১৫ ১৪৩০

সরকারি নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে  চলছে শহরতলীর কোচিংগুলো

যুগের চিন্তা রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২৩  



এসএসসি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে প্রশ্নপত্র ফাঁস ও গুজব প্রতিরোধে ২৬ এপ্রিল থেকে ২৩ মে পর্যন্ত সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দিপু মনি। তবে এই নির্দেশনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে তল্লা, হাজীগঞ্জ, পাঠানটুলী, চৌধুরীবাড়ি, এনায়েতনগর সহ আরও অনেক এলাকাতে গোপনে কোচিং খোলা রেখে শিক্ষার্থীদের লুকিয়ে পড়ানোর খবর জানা যায় গোপনসূত্রে।

 

 

এসকল কোচিংগুলোর অধিকাংশই সরকারি স্কুলের স্যারদের মাধ্যমে পরিচালনা করা হয়। সকাল-বিকেলে পুলিশ বা সাংবাদিক আসতে পারে তাই সন্ধ্যার পরে ক্লাস করানো হয়। শিক্ষার্থীদের কোচিং-এর মধ্যে রেখে বাহিরে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়। ফলে ক্লাস চলে নির্বিঘ্নে। কিছু শিক্ষকদের সাথে ফোনালাপ হলেও অধিকাংশকেই ফোনে পাওয়া যায়নি।

 

 

যাদের সাথে কথা হয়েছে তারা সকলেই দোষ দিচ্ছেন শিক্ষার্থীদের গার্ডিয়ানদের। তারা বলেন, অভিভাবকদের চাপে তারা কোচিং সেন্টার খোলা রেখেছে। অভিভাবকদের জিজ্ঞেস করলে তারা বলেন, বোর্ড পরীক্ষা বাচ্চাদের নিয়ে ভয়ে থাকি সারা বছর কোচিং-এ পাঠিয়ে লাভ হয় না এই কয়টা দিন কোচিং-এ গেলে শিক্ষকদের সাজেশনে যদি পাশ করে এই আশাতেই পাঠাই। টাকা গেলে যাক আমার বাচ্চা পাশ করলেই চলবে।

 


তল্লা ছোট মসজিদ এলাকায় ইউনিক এডুকেশন কেয়ার, সাকিল একাউন্টিং জোন, তল্লা বড় মসজিদ এলাকার নলেজ প্রি ক্যাডেট, মোকরবা রোডের ইনোভেটিভ টিউটোরিয়াল, বিবি মরিয়ম স্কুলের স্যারদের ব্যক্তিগত বাসাকে কোচিং, হাজীগঞ্জ এলাকার গোপটা রোডে মামুন কোচিং।

 

 

পাঠানটুলী এলাকার টেকনিকেল স্কুলের সাথেই রয়েছে সায়েন্টিফিক কোচিং এছাড়াও রয়েছে উক্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নামবিহীন কোচিং, আই.ই.টি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের স্কুলের অভ্যন্তরের কোয়ার্টারে  রয়েছে নামবিহীন কোচিং, এছাড়াও ব্যক্তিগত বাসাকেও অনেকে বানিয়েছেন কোচিং সেন্টার, চৌধুরীবাড়ির লক্ষীনারায়ণ রাস্তায় রয়েছে রয়েল কোচিং একাডেমী, এ.টি কোচিং সেন্টার রেলওয়ে সড়কে রয়েছে নিউরন কোচিং সেন্টার, এনায়েতনগর রাস্তায় রয়েছে এডুকেয়ার কোচিং সেন্টার।

 

 


এসএসসি পরীক্ষা শুরুর প্রথম দিনেই জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ গণমাধ্যমের মাধ্যমে সকলকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, “কোন অনিয়ম-দুর্নীতি অথবা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান যেই হোক আমরা তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।” এন.হুসেইন রনী/জেসি

এই বিভাগের আরো খবর