বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১   আষাঢ় ১০ ১৪২৮

সিটি এলাকায় বিশুদ্ধ পানির জন্য হাহাকার

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২১  

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় পানি সরবরাহের সময়  বাড়িয়ে ১৬ ঘন্টা করা হয়েছে। আট ঘন্টার সময় বেড়ে ১২ ঘন্টা করা হয় গত বুধবার । এরপর গতকাল শনিবার থেকে সেই সময় আবারও বাড়িয়ে করা হয় আট ঘন্টা করে দুই বেলায় ১৬ ঘন্টা। সময় বাড়ে কিন্তু পানি সরবরাহ নেই । নাসিকের পানি সরবরাহের নতুন নিয়ম চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে সাধারন মানুষ। গত ৬ দিন ধরে পানি পাচ্ছে না মানুষ বন্দর, সদর ও সিদ্ধিরগঞ্জের সাধারন মামুষ। পুরো সিটি কর্পোরেশনের নতুন নিয়মে পানি জন্য হাহাকার। এর জন্য সাধারন মানুষ নাসিকের নতুন নিয়মকে দায়ি করছেন ভূক্তভোগীরা।

 

জানা গেছে, নাসিকের পানি সরবরাহের নতুন নিয়মে যে সময়ে পানি থাকার কথা সেই সময়ের কয়েক ঘন্টা আগেই পানি থাকে না ওয়াসার লাইনে। গত ১ তারিখ থেকে সিটি করপোরেশন এলাকাই পানি সরবরাহ চলছে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে। পানি সরবরাহের জন্য যে সময় বেধেঁ দেওয়া হয় তার প্রায় কয়েক ঘন্টা আগেই তা থাকে না। এদিকে পাম্পে গিয়ে দেখা যায় পাম্প চলছে লাইনে পানি নেই। পাম্প ওয়াপাটর বলেন, পাম্প তো চালু আছে তাহলে লাইনে পানি নেই কেনো তা আমি জানি না। পাম্প তো আমি টাইম মতোই চালু  ও বন্ধ করি।

 

নারায়ণগঞ্জ সদর,বন্দর ও সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিককের পুরো এলাকায় দেখা দিয়েছে পানির তীব্র সংকট। পানি সরবরাহ ঠিক মতো হচ্ছে না বলে দাবি করছে সাধারণ মানুষ। এর ফলে গত ৬  দিন ধরে পানি সংকটে পড়েছে নারায়ণগঞ্জ সদর,বন্দর ও সিদ্ধিরগঞ্জের সাধারণ মানুষ। পানিসংকটের কারণে তাদের রান্নাবান্না, গোসলসহ দৈনন্দিন কাজকর্ম ব্যাহত হচ্ছে। আর এই নতুন নিয়মে পানি সরবরাহের কারণে সাধারণ মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

 


নাসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী আজগর হোসেন বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর নির্দেশে দুই বেলায় ৮ ঘন্টা করে ১৬ ঘন্টা পানি সরবরাহ করা হয়েছে । এখন থেকে রাত ২টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত পানি সরবরাহ করা হবে। আবার দুপুর ২টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে পানির পাম্প। এই সময়ের মধ্যে গ্রাহকদের প্রয়োজনীয় পানি সংরক্ষণ করে রাখার অনুরোধ জানান তিনি। বলেন, নতুন নিয়মে কিছু দিন কষ্ট করতে হবে। তাই সবাইকে পানি মজুদ করে রাখার আহবান করছি।

 

তথ্যমতে, গত ২৪ মে সিটি করপোরেশন এক জরুরী বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নগরবাসীকে জানায়, ১ জুন ভোর ৫টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত এবং বিকাল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দুই দফায় ৮ ঘন্টা পানি সরবরাহ করা হবে। এই সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় পরিমান পানি সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করে ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করেন। নির্দেশনা মতে ১ জুন ভোর থেকে নতুন নিয়মে পানি সরবরাহ শুরু হয়। কিন্তু ওইদিন বিকাল থেকেই নাসিকের বিভিন্ন এলাকায় পানি সংকট দেখা দেয়। যারা নাসিকের সরবরাহকৃত পানি ব্যবহার করেন তারা ভোগান্তিতে পড়েন।  

 

এদিকে সিটি করপোরেশনের সূত্র জানায়, পানি সরবরাহের পাম্প চালানোর সময় আরও চার ঘন্টা বৃদ্ধি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) সকাল থেকে ৬ ঘন্টা করে দুই বেলায় মোট ১২ ঘন্টা পাম্প চালু রাখবে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের পানি সরবরাহ বিভাগ (সাবেক ঢাকা ওয়াসা)। কিন্তু তাতেও কাংখিত পানি পাচ্ছে না নগরবাসী। এরপর আবারও গতকাল শনিবার পানি সরবরাহের সময় বেড়ে ১৬ ঘন্টা করা হয়েছে। আট ঘন্টা করে দুই বেলায় ১৬ ঘন্টা পানি সরবরাহ করবে ।

 

সূত্র আরও জানায়, নানান কারণে নারায়ণগঞ্জে ২৪ ঘন্টা পানি সরবরাহ করা হতো। পানি সরবরাহের সিস্টেমটি নিয়ন্ত্রিত ছিল না। এতে বিপুল পরিমাণ বিদ্যুৎ অপচয় হতো। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কাছে পানি সরবরাহের দায়িত্ব আসার পর সিটি করপোরেশন সবধরনের কার্যক্রম গুছিয়ে আনার চেষ্টা করছে। সে অনুযায়ী সিটি কর্পোরেশন দুই বেলা পানি সরবরাহের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু এই সিস্টেম শুরুতেই মুখ থুবড়ে পড়েছে নগরের বিভিন্ন এলাকায়। বিষয়টি নাসিক মেয়রকে আরও গভীরভাবে পর্যালোচনা করে দেখার অনুরোধ জানিয়েছেন ভুক্তভোগী সাধারণ মানুষ।
 

এই বিভাগের আরো খবর