সোমবার   ২৬ জুলাই ২০২১   শ্রাবণ ১১ ১৪২৮

২৪ ঘন্টার মধ্যেই অটোচালক হত্যা মামলার রহস্য উন্মোচন 

যুগের চিন্তা অনলাইন

প্রকাশিত: ১৬ জুলাই ২০২১  

ফতুল্লার বক্তবলী ইউনিয়নে চর রাজাপুরস্থ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আলীর খামারে গত বুধবার একটি অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার করে ফতুল্লা থানা পুলিশ। লাশ উদ্ধারের তিন ঘন্টার মধ্যেই দুই আসামীকে গ্রেফতার করে। আর ২৪ ঘন্টার মধ্যেই আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করেছে আসামীরা। অনেকটা ম্যাজিকের মতই দ্রæত আসামীদের গ্রেফতার এবং আসামীরা হত্যার দায় স্বীকার করে।

 

মূলত অজ্ঞাত লাশটি উদ্ধারের সাথে সাথে ফতুল্লা থানার একাধিক টিম তদন্তে মাঠে নামে। পরবর্তিতে অজ্ঞাত লাশের পরিচয় উদঘাটন, অজ্ঞাত নামা ব্যক্তিদের আসামী করে মামলা নিয়ে রহস্য উন্মোচন, হত্যাকাণ্ডের জড়িত সকল আসামীদের গ্রেফতার, লুন্ঠিত মিশুক উদ্ধারসহ আসামীদের আদালতে সোপর্দ করে প্রত্যেকের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড সম্পূর্ণ করেছে ফতুল্লা থানা পুলিশ। আর এই সবকিছু ম্যাজিকের মত মাত্র ২৪ ঘন্টায় সর্ম্পূণ করেছে পুলিশ।

 

মামলা সূত্র জানাগেছে, মিশুক চালক নাম রবিনকে (২৫) হত্যা করে ব্যাটারী চালিত মিশুক গাড়ি ছিনিয়ে যায় তারই বন্ধু রিফাত (২৬) ও জিহাদ (২৫)। গত মঙ্গলবার রাতে মিশুক চালককে হত্যা করে বক্তাবলীর চর রাজাপুরস্থ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আলীর খামারে লাশটি ফেলে চলে যায়। পরে বুধবার দুপুরে খবর পেয়ে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধারের পর অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে মামলা নেয়। মামলা দায়ের তিনঘন্টার মধ্যে প্রথমে রবিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে রবিনের দেয়া তথ্যে জিহাদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নিহত রবিন মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ি থানার খিলপাড়া এলাকার আবুল কালামের ছেলে। সে তার মা স্ত্রী ও ৮ মাসের কন্যা সন্তানকে নিয়ে ফতুল্লার নরসিংপুর মরাখাল পাড় এলাকার সাজেদার বাড়িতে বসবাস করে। সে মিশুক গাড়ি চালাতো আর স্ত্রী আফসানা ৮ মাসের দুধের শিশুকে রেখে গার্মেন্টে চাকরী করে।

 

আটককৃত রিফাত ফরিদপুরের নগরকান্দা থানার আশফরদি মোঃ মিরাজ সরদারের ছেলে। সে পরিবারের সাথে ফতুুল্লার শাসনগাও হুজুরের ভাড়াটিয়া বাসায় বসবাস করে। ধর্মগঞ্জ থেকে রিফাতকে ও অবন্তির সামনে থেকে জিহাদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নিহত রবিনের মা মনোয়ারা বেগম জানান, রবিন তাদের ভাড়াটিয়া বাড়ির মালিক সাজেদা বেগমের মিশুক চালাতো। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রবিন মিশুক নিয়ে বের হয়। রাতে সে বাসায় ফিরে আসেনি। পরের দিন গতকাল বুধবার দুপুরে লোক মাধ্যমে জানতে পারি রবিনকে কে বা কারা যেন হত্যা করে বক্তাবলীর চর রাজাপুরস্থ মাছের খামারে ফেলে রেখেছে। কান্না জরিত কন্ঠে তিনি আরো জানান, রবিনের বাবা থেকেও না থাকার মত। রবিনকে গত দুই বছর আগে বিয়ে করাইছি। তার একটি ৮ মাসের কন্যা সন্তান রয়েছে। এখন শিশু বাচ্চাটা বড় হয়ে কাকে বাবা বলে ডাকবে। যারা নিস্পাপ শিশুকে এতিম করেছে তাদের বিচার চাই।

 

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান জানান, লাশ উদ্ধারের হত্যা কাণ্ডে জড়িত দুই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামীরা বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করেছে।
 

এই বিভাগের আরো খবর