সোমবার   ২৬ জুলাই ২০২১   শ্রাবণ ১১ ১৪২৮

রমজানের আগেই অস্থির বাজার

লতিফ রানা

প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল ২০২১  

সামনে পবিত্র রমজান। আর ধর্মীয় এই উপলক্ষকে কেন্দ্র ভোজন রসিক হয়ে উঠেন বেশীর ভাগ মুসলমান। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর যোগসাজশে বেড়ে যায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য। আর তাই রমজান আসার আগেই রমজানকে কেন্দ্র করে অস্থির হয়ে উঠছে বাজারের চিত্র। বর্তমান বাজারে টমেটো, পেয়াজ আর পেপে ছাড়া ৫০ টাকার নিচে কোন দ্রব্যের মূল্য খুজে বেড় করা কষ্ট সাধ্য।

 
 

শুক্রবার (২ এপ্রিল) শহরের দ্বিগুবাবুর বাজার ঘুরে এর ব্যতিক্রম চিত্র দেখা যায়নি। রমজানে বেশী ব্যবহার করা হয় এমন পণ্যের মধ্যে সয়াবিন তেল বসুন্ধরা ৫ লিটার বোতলজাত তেলের মূল্য এক সপ্তাহের ব্যবধানে ২০ টাকা বেড়ে বর্তমানে ৬৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও তীর ৬২০টাকা, রূপচাঁদা এ সপ্তাহে ২০ বাড়িয়ে ৬৪০ টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে। খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১৩০-১৩৫ টাকা এবং সরিষার তেল ৫ লিটার ৭৬০টাকা দামে বিক্রি করা হচ্ছে।
 
 

খুচরা বাজারে প্রতি কেজি ছোলা বুট বিক্রি হচ্ছে ৬৫ থেকে ৭০ টাকায়, বুটের ডাল ৮০ টাকা, ডাবলী ৪২ টাকা, খেসারী ডাল ৮০ টাকা, এঙ্কার বেসন ৬০ টাকা, বুটের বেসন ৯০ টাকা, চিনি ৮০ টাকা এবং মুড়ি ৬০ থেকে ৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
 
 

বাজারে সপ্তাহের ব্যবধানে অপরিবর্তিত রয়েছে পেয়াজ, রসুন, আদা এবং ডিম এর দাম। পেয়াজ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকায়। দেশি রসুন ও আদা বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৬০ থেকে ৭০ টাকা। ফার্মের মুরগির ডিম প্রতি ডজন বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে ৯৫ টাকা।
 
 

এছাড়াও সবজির বাজার ঘুরে দেখা যায়, কমের মধ্যে টমেটো, গাজর ও পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩৫ টাকা প্রতি কেজি। পটলের কেজি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, বরবটি ৬০ থেকে ৭০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০ থেকে ৬০ টাকা। বেগুনের দাম সপ্তাহান্তে ১০ টাকা বেড়ে ৫০ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
 
 

শিমের বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায় মাঝারি আকারের লাউ ৫০ থেকে ৬০ টাকা। ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৬০ থেকে ১৬৫ টাকা, পাকিস্তানি কক ২৪০ থেকে ২৬০ টাকা এবং লেয়ার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২২০ টাকা কেজি।
 
 

মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে ব্যবসায়ী খলিলুর রহমান জানান, রোজার সময় সব্জির দাম এমনিতেই বেড়ে যায়। তাছাড়া সব্জির মৌসুম হলো শীতকাল। তাই শীত শেষ হতেই বাড়তে শুরু করেছে সবজির দাম। রোজাকে কেন্দ্র করে এক সপ্তাহের ব্যবধানে কাঁচাবাজারের মূল্য আরো বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।
 

এই বিভাগের আরো খবর