মঙ্গলবার   ২৩ এপ্রিল ২০২৪   বৈশাখ ১০ ১৪৩১   ১৪ শাওয়াল ১৪৪৫

ইরানি ড্রোনের ঝাঁকই প্রধান সমস্যা, ইউক্রেনের অসহায় স্বীকারোক্তি

যুগের চিন্তা

প্রকাশিত : ১১:২১ এএম, ৯ নভেম্বর ২০২২ বুধবার

কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজধানী কিয়েভ এবং আরও কয়েকটি শহরে যেসব ড্রোন হামলা হয়েছে তা ইরানের তৈরি কামিকাজে শাহেদ-১৩৬ নামে পরিচিত। ইউক্রেনের দাবি, রাশিয়াকে সহায়তায় এসব ড্রোন সরবরাহ করে আসছে তেহরান।

 

 

 

ইরানি ড্রোন ঝাঁক হয়ে আসে, এগুলো মোকাবিলা করা কঠিন এমন মন্তব্যে অসহায় স্বীকারোক্তি করলো ইউক্রেন। ব্রিটেনে নিযুক্ত ইউক্রেনীয় রাষ্ট্রদূত ভাদিম প্রিস্টাইকোর বরাতে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম দ্যা গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

 

 

রাষ্ট্রদূত ভাদিম প্রিস্টাইকো বলেন, তাদের রকেট ফুরিয়ে যাচ্ছে যে এটা নিশ্চিত। আজকে রাশিয়ান নৌবহর তাদের ঘাঁটি ছেড়ে যায়নি যেখান থেকে আমাদের (ইউক্রেনের) দিকে রকেট হামলা চালায়। ইরানের ড্রোন এটাই বড় সমস্যা। এগুলো খুবই সস্তা, হামলার সময় ঝাঁক হয়ে আসে, মোকাবিলা করা কঠিন।

 

 

এমন পরিস্থিতিতে ইরানের ওপর রাজনৈতিক চাপ এবং নিষেধাজ্ঞার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের কাছে প্রমাণ আছে তারা (ইরান) হাজার হাজার সরবরাহ করেছে। তার মধ্যে কিছু ইউক্রেনের একেবারে কাছাকাছি বেলারুশে সংরক্ষণ করা হয়েছে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, এসব কিয়েভের কাছাকাছি রাখা হয়েছে।

 

 

হামলা থেকে রক্ষায় আমাদেরকে ইউক্রেনের আকাশ ঢেকে রাখতে হবে। রাশিয়া ও ইরানের ওপর আমাদের চাপ আরও বাড়াতে হবে। যেন নতুন করে রকেট আর না পাঠানোর সক্ষমতা রাখে বলে মনে করেন তিনি।

 

 

ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডে হামলার জন্য রাশিয়াকে সহায়তা ড্রোনসহ ক্ষেপণাস্ত্র পাঠাচ্ছে ইরান, এ নিয়ে জোরালো দাবি করছে পশ্চিমা দেশগুলো। এ বিষয়ে মস্কো-তেহরান প্রত্যাখ্যান করলেও মনে গলেনি পশ্চিমাদের। সূত্র: ঢাকা ট্রিবিউন অবলম্বনে