রোববার   ২১ জুলাই ২০২৪   শ্রাবণ ৬ ১৪৩১   ১৪ মুহররম ১৪৪৬

শামীম ওসমান ডানে গেলে আইভী যায় বায়ে  

যুগের চিন্তা রিপোর্ট

যুগের চিন্তা

প্রকাশিত : ০৯:৩৫ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ সোমবার

 

নারায়ণগঞ্জের শব্দের সঙ্গে আইভী-শামীম ওসমানের বিরোধ শব্দটাও ওতপ্রোতভাবে জড়িত। তাদের দল একটা হলেও একজন ডানে গেলে অন্যজন বামে! কথার যুদ্ধে একজন অপর জনকে বেয়াদব সম্বোধন করতেও পিছপা হননি। এমনকি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারাও এ বিরোধের মীমাংসার চেষ্টা করেও সমাধান খুঁজে পাননি। আর নির্বাচন আসলেই সেই বিরোধে যেন ‘ঘি ঢেলে’ দেওয়া হয়! আগামী নির্বাচনের আগ মুহুর্তে সম্প্রতি তাদের বাকযুদ্ধ যেন আবার জেগে উঠেছে।

 

এদিকে আগামী নির্বাচন ঘিরে আওয়ামী লীগের এই দুই জনপ্রতিনিধির কথার লড়াই ফের শুরু হয়েছে। বিভিন্ন সময় নানা ইসুত্যতে তাদের দ্বন্দ্ব যেন লেগেই থাকে। তাদের লড়াই নিয়ে ২০২২ সনের সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি নেতা তৈমুর আলম মন্তব্য করেছেন তারা হলেন আলাল দুলাল। আলাল যেমন ডানে গেলে দুলাল যায় বায়ে। তেমনি ভাবে শামীম ওসমান আইভী একই দলের জনপ্রতিনিধি হয়েও তাদের অবস্থা আলাল দুলালের মত। শামীম ওসমান যদি ডানে যায় আইভী যায় বায়ে।

 

জানা যায়, আগামী নির্বাচন ঘিরে শনিবার শহরের ২ নম্বর রেলগেট এলাকায় সাংসদ শামীম ওসমানের নেতৃত্বে মহা সমাবেশ করা হয়। তার এই সমাবেশে আওয়ামী লীগের এমপি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে প্রধান অতিথি করা হয়। তবে সাংসদ শামীম ওসমানের জনসভায় মেয়র আইভী বলয়ের কাউকে দেখা যায় নাই। এমনকি আইভী নিজে উপস্থিত ছিলেন না। কিন্তু সমাবেশ থেকে সাংসদ শামীম ওসমান আইভীকে নিয়ে খোঁচা মেরে কথা বলতে ছাড় দেন নাই।

 

শামীম ওসমান তার বক্তব্যে বলেছেন, বঙ্গবন্ধুকে আমাদের নিজ দলের খন্দকার মোশতাকরা হত্যা করেছে। তাই এই নারায়ণগঞ্জে দলের মাঝে খন্দকার মোশতাক রয়েছে। কিছু দিন আগেও পুলিশিং কমিউনিটি সভার আগে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনে বঙ্গবন্ধু মুরাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংসদ শামীম ওসমান এবং নাসিক মেয়র আইভী এক সাথে হলেও তাদের কাউকে কথা বলতে দেখা যায় নাই। মেয়র আইভী পরে পুলিশিং কমিউনিটি সভায় যোগদান করেন নাই।

 

তবে গত সপ্তাহে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বাজেট ঘোষনা অনুষ্ঠানে সাংসদ শামীম ওসমান এবং সেলিম ওসমানকে নিয়ে নানা ক্ষোভ প্রকাশ করে মন্তব্য করেন। মেয়র আইভী হকার ইস্যুতে বলেন, শামীম ওসমান আমাকে পিটিয়েছিল। শহরের যানজট নিয়ে বলেন, এখন অটো ধরলে দেখা যায় এমপির স্টিকার নিয়ে অটো চালকরা শহরে প্রবেশ করেন। ডিসি এসপি দুই এমপির কথা চলেন। এখন আমার মেয়র গিরি বাদ দিয়ে এমপি গিরি করার সময় হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে মনোনয়ন চাইবো।

 

দলীয় সুত্রমতে জানা যায়, নির্বাচনের আগে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগে ঐক্য গড়তে স্থানীয় এক নেতা বা নেত্রীকে একসাথে মাঠে নামার আহ্বান জানিয়ে সাড়া পাননি বলে মন্তব্য করেছেন এমপি শামীম ওসমান। তার এমন মন্তব্যের পর স্বাভাবিকভাবেই অনেকের মাঝে প্রশ্ন উঠেছে যে, নারায়ণগঞ্জের এমন কোন নেতা বা নেত্রীর কাছে ঐক্যের আহ্বান জানিয়ে সাড়া পেল না প্রভাবশালী এই সাংসদ? রাজনৈতিক মহলের মতে, নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে শামীম ওসমান এবং মেয়র আইভীর মধ্যে বিরোধ দীর্ঘদিনের। তাই মেয়র আইভীকেই শামীম ওসমান একসাথে মাঠে নামার আহ্বান জানিয়ে এখনো ইতিবাচক সাড়া পাননি।

 

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মাঝে আলোচনা হচ্ছে সাংসদ শামীম ওসমান এবং মেয়র আইভী একই দলের এমপি হলেও তারা আগে থেকেই দুজন দুই দিকে অবস্থান করে থাকেন। স্থানীয় ভাবে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগকে উত্তর দক্ষিন মেরু হিসেবে জানেন রাজনৈতিক বোদ্ধমহল। তাদের কাজে কর্মেও সেই ডান বামের কথা ফুটে উঠে। একজন ডানে গেলে আরেকজন বামে যান। এস.এ/জেসি