মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪   আষাঢ় ১১ ১৪৩১

বাবুর গালিতে কালামের পোয়াবারো

যুগের চিন্তা রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৮ মে ২০২৪  

 

 

আসন্ন নারায়ণগঞ্জ সোনারাগাঁ উপজেলা নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহফুজুর রহমান কালাম পুরোদমে নির্বাচনী প্রচারনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। আগামীঢ ২১ মে সোনারগাঁ উপজেলার ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

 

ইতোমধ্যে উপজেলা নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল ওমর বাবু একজন জনপ্রিয় ডাক্তার এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু জাফর চৌধুরীকে নিয়ে গালাগালি করায় তা ভোটের মাঠে প্রভাব ফেলেছে। সেই সাথে বাবুর কর্মকান্ড নিয়ে ব্যপক ভাবে সমালোচনা তৈরী হয়েছে। তবে চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল ওমর বাবু গালি এখন আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী কালামের আশীবার্দ হয়ে দাড়িয়েছে। কেননা কালাম মানুষের কাছে গিয়ে তার ঘোড়া মার্কায় ভোট চেয়ে যাচ্ছেন।


এদিকে এই নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীদের সমর্থকদের মাঝে উত্তাপ তৈরী হচ্ছে। এছাড়া ২ মে ঘোড়া মার্কা নিয়ে সোনারগাঁয়ের প্রতিটি ঘরে গিয়ে মানুষের কাছে গিয়ে ভোট  চেয়ে যাচ্ছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহফুজুর রহমান কালাম। তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল মোঘড়া পাড়া এলাকায় কালামের ঘোড়া মার্কার পক্ষে নির্বাচনী পথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সভায় সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রবীন নেতা মনির হোসেন বক্তব্য রাখেন।

 

একই সাথে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের প্রয়াত এমপি মোবারক হোসেনের ছেলে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এরফান হোসেন দীপ। এছাড়া সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের প্রয়াত চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনের ছেলে তানহা কালমের পক্ষে সমর্থন দিয়ে ঘোড়া মার্কা ভোট চান। আর এই সভার মাধ্যমে মোগড়াবাসি ইতোমধ্যে জানান দিয়েছে ঘোড়া মার্কার প্রার্থীকে জয়ী করার জন্য তারা ঐক্যবদ্ধ ভাবে মাঠে নেমেছেন।  


কালামের নির্বাচনী সভায় সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রবীন নেতা মনির হোসেন বলেন, কালাম আওয়ামী লীগের রাজনীতিবিদ। একজন আদর্শ রাজনীতি বিদের মাঝে যে গুনাবলি থাকার দরকার তা কালামের মাঝে রয়েছে। আমি কালামের পক্ষে সমর্থন দিয়ে তাকে নির্বাচিত করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানাই। তাছাড়া এবার সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনে অন্যান্য প্রার্থীর চেয়ে ঘোড়া মার্কার কালাম যোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তি। তাকে নির্বাচিত করলে কেউ অত্যাচারিত হবে না।


এই প্রয়াত এমপি মোবারক হোসেনের ছেলে এরফান হোসেন দীপ বলেন, আমাদের সোনারগাঁয়ের কিছু ব্যক্তি তার নিজের ঘরে প্রার্থী খোঁজ করতে গিয়ে এখন বর্ডার প্রান্তে চলে গেছে। আমার কথা হচ্ছে সোনারগাঁয়ের মোগড়া পাড়ায় কি যোগ্যতা সম্পন্ন লোক নেই। সেখানকার একজন বিতর্ক প্রার্থীকে কেন সমর্থন দিতে হবে। আমাদের মোগড়াপাড়ার মানুষ কি দোষ করছে। আমি কালাম ভাইয়ের ঘোড়া মার্কায় সমর্থন দিয়ে তার তাকে নির্বাচিত করার জন্য মাঠে নেমেছি। আপনারা এই ঘোড়া মার্কাকে নির্বাচিত করে ঘরে ফিরবেন।  


সোনারগাঁ উপজেলার প্রয়াত চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনের ছেলে তানহা মোশারফ বলেন, আমি ঘরের ছেলে রাইখা কাচঁপুরে গিয়ে ভোট দিব সেই পাগল হই নাই। আমার পিতার মৃত্যুর আগে আব্বার পাশে কালামকে দেখিছি। আমি ঘোড়া মার্কাকে সমর্থন দিচ্ছি। ঘোড়া মার্কা বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবে বলে আমি আশাবাদি।


এসময় মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম বলেন, আগামী ২১ মে সোনারাগাঁ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এই নির্বাচনে আমার বড় ভাই মাহফুজুর রহমান কালাম ঘোড়া মার্কা নিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন। তিনি এর আগেও এই পদে একাধিকবার নির্বাচন করেছেন। আজকে কালাম ভাইয়ের ঘোড়া মার্কার পক্ষে দিনমজুর থেকে শুরু করে রিকশাওয়ালা, অটো, সিএনজি চালক সকলেই বলে কালাম ভাইয়ের ঘোড়াকে ভোট দিব।

 

এমনকি তারা ঘোড়া মার্কার জন্য ভোট চেয়ে যাচ্ছেন। তাছাড়া এবার সাধারন ভোটাররা কালাম ভাইয়ের নির্বাচনীর দায়িত্ব নিয়েছে। মানুষ যেদিকে বেশি যায় আল্লাহ তাতে রাজি খুশি থাকেন। কেউ হুমকি ধমকি দিয়ে কোন ছাড় পাবে না। জনগণের ভালোবাসা আছে বিধায় কালাম ভাই প্রার্থী হয়েছেন।


অপরদিকে বাবুল ওমর বাবুকে ভোট না দেয়ার আহ্বান জানান তার বোন ডলি আক্তার। তিনি বলেন, বাবু, মোশারফ এরম ত অত্যাচারীকে আপনারা ভোট দিবেন না। তাদেরকে বয়কট করবেন। আমি ঘোড়া মার্কার পক্ষে আপনাদের কাছে ভোট চাইতে আসছি। আপনারা ঘোড়া মার্কায় ভোট দিয়ে কালাম ভাইকে নির্বাচিত করবেন। আমার ভাইকে নয়। তারা অত্যাচারি। তার নানী গো বাড়ির লোক ডাকাত। এদেরকে ভোট দিবেন না।  
 

এই বিভাগের আরো খবর