বৃহস্পতিবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   ফাল্গুন ১০ ১৪৩০

ঈদকে টার্গেট করে নিত্য পণ্যের সমাহার

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০২৪  

 

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৮ তম আসর এবার ২১ দিন পর শুরু হওয়ায় এবার ব্যবসায়ীদের টার্গেট পবিত্র ঈদ উল ফিতরের কেনাকাটা। তাই ঈদের প্রয়োজনীয় পোষাক, জুতা, আসবাব, সাজসজ্জা ও প্রসেধনি জাতীয় পন্যের সমাহার ঘটাচ্ছেন মেলায় আগত স্টল ও প্যাভিলিয়ন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। তবে মেলার ৩শ দিনেও স্টল প্রস্তুত না হওয়ায় দর্শনার্থীদের অনেকেই হতাশা প্রকাশ করেছেন।

 

যদিও সরকারী ছুটির দিন আর মেলার শেষভাগের বিক্রি বাড়ার আশায় রয়েছেন ব্যবসায়ীরা। মেলার ৩য় দিনে ব্যবসায়ী ও দর্শনার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তীব্র শীত কিছুটা কমতে শুরু করেছে সূর্যের দেখা পাওয়ায়। ফলে এদিন বেলা বাড়ার সাথে সাথে দর্শনার্থীরা মেলায় প্রবেশ করেছেন দলে দলে। বিকাল ৪ টা পর্যন্ত এদিন প্রায় ৮ হাজার টিকেট বিক্রির কথা জানিয়েছেন আব্দুল্লাহ এন্টারপ্রাইজের ঠিকাদার ও রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছালাউদ্দিন ভুঁইয়া।  

 

তিনি বলেন এবার মেলায় যাতায়াতে চারদিক থেকে বিআরটিসি বাসসহ গণপরিবহন রয়েছে। ফলে খুব সহজে মেলা ঘুরে যেতে পারেন যে কেউ। ফলে গত বছরের চেয়ে ভালো সারা পাওয়া যাবে।

 

মেলার প্রবেশ পথে বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়নে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরের বঙ্গবন্ধুর বাড়ির আদলে করা যাদুঘরে ভীর দেখা গেলেও কেনাকাটা খুব একটা জমেনি। ক্রেতারা দেখছেন বেশি কিনছেন কম। ভুলতার পাঁচাইখা থেকে ঘুরতে আসা গৃহীনি ফারজানা আক্তার হাসনা হেনা বলেন, এবার মেলায় নিত্য পন্যের সমাহার দেখলাম। তবে দাম কিছুটা বেশি। মেলার শেষের দিকে প্রয়োজনীয় কিছু কেনাকাটা করবো। কারণ ওই সময়টাতে ব্যবসায়ীরা মূল্যে ছাড় দিয়ে থাকে।

 

এ সময় তিনি আরও বলেন, মেলা থেকে এবার ঈদের কেনাকাটা সারবো। কারণ এখানে ভালো ভালো প্রতিষ্ঠানের মানসম্মত পন্য পাওয়া যায়।  

 

গত ২১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেছেন পূর্বাচলের স্থায়ী ভ্যানুতে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। তবে এখনো স্টল ও প্যাভিলিয়ন প্রস্তুত না হওয়ায় দর্শনার্থীদের অনেকেই হতাশা প্রকাশ করেছেন। তবে ব্যবসায়ীরা আশায় রয়েছেন সরকারি ছুটির দিনের। 

 

মেলার আসা জন্মু কাশ্নীরের ব্যবসায়ী আমির হোসাইন বলেন, গতবারের মতো এবারও আমরা স্টল দিয়েছি। আমাদের শীতের শালের বেশ কদর রয়েছে। শীত থাকলে আমরা আমাদের টার্গেট পূরণ করতে পারবো। এবার মেলা থেকে মানুষজন ঈদের কেনাকাটা করবেন। কারণ সামনে ঈদ আসছে। সে কথা বিবেচনা করে আমরা কাশ্মীরি শাড়ীসহ পাঞ্জাবি রেখেছি স্টলে। আশা করি বিক্রি ভালো হবে। 

 

এ এইচ বি স্কুল শিক্ষার্থী ইমলা মুহান্না বলেন, বাবার সাথে মেলায় ঘুরতে আসলাম। ঈদের জন্য জামা পছন্দ করেছি। তিন সেট ক্রয় করবো। বাবা বলেছেন একটি ঈদের জন্য রেখে দিতে।  

 

এবার বাণিজ্যমেলায় সারাদেশ থেকে লোকজন আসার যোগাযোগ ব্যবস্থা সন্তোষজনক হলেও নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও লোক ও কারু শিল্প মেলা চলতে থাকায় কিছুটা প্রভাব পড়বে এ মেলায়। আবার ফেব্রুয়ারিতে একুশে বই মেলা শুরু হলেও বাণিজ্য মেলায় দর্শনার্থী কম হবে বলে মনে করছেন মেলা সংশ্লিষ্টরা।

 

তবে গ্রামের চেয়ে শহরের ক্রেতা বেশি হবেন বলে জানিয়েছেন রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক মাসুম চৌধুরী অপু। কারন হিসেবে তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরণি চালু হওয়ার সুফল পাবে রাজধানীবাসি।নিরাপত্তা ভালো থাকায় বিদেশী ক্রেতা বিক্রেতাও থাকবে বেশি।   

 

সূত্রমতে, এবারের মেলায় দেশ-বিদেশের মোট ৩৩০টি স্টল, প্যাভিলিয়ন ও মিনি প্যাভিলিয়ন অংশ নিয়েছে। যার মধ্যে  রয়েছে ১৮টি বিদেশি স্টল। এছাড়া স্থানীয় উদ্যোক্তারাও তাঁদের পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রির স্টল সাজাচ্ছেন। আশা করা হচ্ছে এ মেলায় এবার ৫শ কোটি টাকার রপ্তানি আদেশ পাবেন জানিয়েছেন ইপিবি। এস.এ/জেসি
 

এই বিভাগের আরো খবর